প্রধান মেনু

অহংকার ও ক্রোধের পতন

এনামুল হক টগর

তোমাদেরকে আল্লাহর ইবাদত দাসত্ব ও কর্ম করার জন্যই,
এই পৃথিবীতে পাঠানো হয়েছে জানোতো মানব সবাই?
কিন্তু তোমরাতো অনেকেই আমিত্ব অহংকার ও ক্রোধে নিজেরাই নিজেদেরকেই শ্রেষ্ঠ ভাবছো বিস্ময় ধাঁধার বোধে!
যদি সত্যই নিজেদেরকে শ্রেষ্ঠ ভাবো তা হলে-তো তোমাদের-
জীবন বিধান ও সংসার সময় হবে কঠিন নির্মম ও ব্যথায় নিষ্ঠুর।
তার চেয়ে মহৎ হয়ে যাও,সেবা কল্যাণ ও কর্ম করে সেবক হয়ে যাও মানবতার মহান আলোর বিবেক।
আমিত্ব ও ক্রোধকে পরাস্ত করলেই তোমরা হবে আর্দশ ও সভ্যতার সফল সংস্কারক।
জানোতো স্থির ও ধৈর্যশীলরাই শান্তি ও সাম্যের প্রতীক,
সবর ও স্থিতি আড়াল হলেই পৃথিবীতে আন্ধকার নেমে আসে,
আর তখনই সন্ত্রাসী ও ঘাতকরা মানবতাকে ধ্বংস করে বেদনার রক্তপাতে মিশে।
কোন এক দিন আগুন বাতাসকে অহংকার ও গর্ব করে বলেছিল-
আমি অগ্নি আমি দাউ দাউ করে সব জ্বালাই ও পোড়াই ক্ষিপ্ত দহন অনল।
আরো বলেছিল আমিই আমিত্ববান,আমিই সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ,আমিই গর্ব করি আমিই অহংকার করি সবার উপর!
হঠাৎ শান্ত বাতাস রাগে ক্ষুব্ধ হলো আর প্রস্তত হতে লাগলো কঠিন যুদ্ধের-
সাথে আকাশ নদী সমুদ্র মেঘ বৃষ্টি ও পানি প্রবল শক্তিতে ভয়ংকর হয়ে উঠলো-
তাঁরা সবাই আগুনকে ঝটিকা বেগে আক্রামণ করলো
অগ্নির আমিত্ব বিদ্বেষ ক্রোধ আর অহংকার মুহূর্তের মধ্যেই নির্বাপিত ও ধ্বংসে চুরমার হয়ে গেলো!
তার হিংসা ক্রোধ বিদ্বেষ আর অংহকারের বড়াই ধুলায় মিশে পরাজিত হয়ে গেলো।
এভাবেই অহংকারী ও ভণ্ড টাকার দাসরা ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়ে পতনের স্বাদ গ্রহণ করে একদিন।
মনে রেখো নিজেদেরকে ক্ষুদ্র ভাবাই জ্ঞানের মহৎ চিন্তা ও বিজ্ঞতার স্থির চেতনা।
তপস্যায় ক্ষুদ্রের ভেতর থেকেই বৃহৎ জ্ঞানী প্রকাশ পায়
তোমরা অণু ও পরমাণুর মতো ক্ষুদ্র হয়ে
নিজেকে অনুসন্ধান করো আর গবেষণা করো বিশ্ব-জগত সমুদয়।
তপস্যায় সফল হলে শরীয়ত ও মারফতের ফলাফলে পাবে আলোর পজিটন ।
এই আলোর গভীরেই চেতনা ও চৈতন্যের মহাসত্য আর মহাত্মার পরিচয় দর্শন।
নিজেকে না চিনলে আমিত্ব অহংকার ক্রোধ হিংসা বিদ্বেষ ও লালসা,
তোমাদেরকে পতন করবে ব্যর্থ পরাজয় ও ধ্বংস বিনাশে বিফল।
২৬/০৭/২০২০