প্রধান মেনু

আটঘরিয়ায় ১টি মাদ্রাসার নিয়োগ পরীক্ষায় পরাজিত হয়ে সভাপতির উপর চড়াও

আটঘরিয়া সংবাদদাতা :
পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার নাদুড়িয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার নিরাপত্তা কর্মী পদে নিয়োগ পরীক্ষায় পরাজিত হয়ে প্রার্থী ও তার চাচা মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সুপারের উপর হামলা মামলা দিয়ে হয়রানী করছেন। জানা গেছে উক্ত মাদ্রাসার নিরাপত্তা কর্মী পদে গত ১৪ আগস্টে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা শিক্ষা অফিসার, পাবনা, উপজেলা শিক্ষা অফিসার, আটঘরিয়া, পাবনাসহ নিয়োগ বোর্ডের অন্যান্য সদস্যদের উপস্থিতিতে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত পরীক্ষায় মোঃ জান্নাত আলী প্রথম ও নির্বাচিত হয়। অপরদিকে মোঃ জুয়েল রানা পিতা মোঃ জাহিদুল ইসলাম গ্রাম নাদুড়িয়া পরাজিত হন। নিয়োগ পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের পরই পরাজিত প্রার্থীর চাচা মোঃ তরিকুলের নেতৃত্বে সেখানে বিশৃংখল পরিবেশ সৃষ্টি করে হট্টগোলের সৃষ্টি করলে আটঘরিয়া থানা পুলিশ কঠোর ভাবে নিয়ন্ত্রণ করে। মোঃ জুয়েল রানা নিয়োগ পরীক্ষায় পরাজিত হবার পর থেকেই মাদ্রাসার সভাপতি ও সুপারকে বিভিন্নভাবে হুমকি ধামকি দিয়ে আসছেন। শুধু তাই নয় ক্ষীপ্ত হয়ে পরাজিত প্রার্থীর চাচা মোঃ তরিকুল ইসলাম রঞ্জু, পিতা মৃত শাহাদত আলী প্রাং ও প্রার্থী মোঃ জুয়েল রানা বাদী হয়ে পাবনার বিজ্ঞ আটঘরিয়া উপজেলা সহকারি জজ আদালতে ৮ জনকে বিবাদী করে এবং পাবনার বিজ্ঞ ২নং আমলী আদালতে সভাপতি ও সুপারের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা দায়ের করেন। তারা মামলা করেও ক্ষান্ত না হয়ে গত ৩১ আগস্ট বেলা সারে ৩টার দিকে নাদুড়িয়া/পারখিদিরপুর বাজারে উক্ত মাদ্রাসার সভাপতি মোঃ আতাউর রহমানকে পরাজিত প্রার্থী জুয়েল রানা ও তার চাচা তরিকুল ইসলাম অতর্কিতভাবে আক্রমণ করে চাঁদাদাবী করেন। পরে আতাউর রহমানের আত্বীয় স্বজন তাঁকে উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে মোঃ আতাউর রহমান ও তার পরিবারসহ নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। একাধীক গোপন সূত্র জানায় উক্ত জুয়েল রানা ইতিপূর্বে ঐ মাদ্রাসার মাঠ ও মুলাডুলি থেকে ইয়াবাসহ পুলিশের হাতে আটক হয়।