প্রধান মেনু

ঈশ্বরদীতে সরকারী কর্মকর্তা ও স্কুল শিক্ষিকার সাংবাদিক সম্মেলন

ঈশ্বরদী ॥ মেয়ের প্রাইভেট টিচার ও বাড়িতে কাজে সহযোগিতাকারী সোনালী আক্তার মুন করোনা ভাইরাস জনিত কারণে খাদ্য সংকটে পড়লে আমাদের কাছে সাহায্য চাই। এমতাবস্থায় মানবিক কারণে পারিবারিকভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে আমি গত ২২ এপ্রির্ল/২০২০ সন্ধ্যার পর কিছু খাদ্য সামগ্রী নিয়ে জিগাতলাস্থ মুনের ভাড়াটিয়া বাসায় গেলে কয়েকজন সন্ত্রাসী যুবক বাহির থেকে গেট বন্ধ করে দেয়। এক পর্যায়ে ভিতরে ঢুকে আমাকে মুনের বোন ফুল ও মুনকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং চাঁদা দাবি করে তিনজনের মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। এ সময় খবর পেয়ে আমার স্ত্রী নার্গিসসহ অন্যান্য এলাকাবাসী উপস্থিত হওয়ার কয়েক ঘন্টা পর আমাকে উপস্থিত লোকজন উদ্ধার করে বাড়িতে পৌঁছে দেয়। উদ্ভুত সৃষ্ট পরিস্থিতির কারণে একজন সরকারী কর্মকর্তা হিসেবে আমি ও একজন স্কুল শিক্ষিকা হিসেবে আমার স্ত্রী নার্গিস পারভীনসহ পরিবারের সদস্যদের চরম মানহানি ঘটে এবং আমরা চরমভাবে মর্মাহত হয়ে পড়ি। আমার পরিবারের পক্ষ থেকে সৃষ্ট ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। গত ২৩ এপ্রিল রাতে উপজেলা পরিষদ গেটের সামনের এশিয়ান টিভির ঈশ^রদী প্রতিনিধির কার্যালয়ে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে ঈশ^রদী কৃষি প্রশিক্ষণ ইনষ্টিটিউটের উপসহকারী প্রশিক্ষক মিজানুর রহমান,স্ত্রী নার্গিস পারভীন ও সোনালী আক্তার মুনের দেওয়া লিখিত বক্তব্যে এসব তথ্য জানাগেছে।