প্রধান মেনু

উপ-নির্বাচন পাবনা-৪ ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া পিতার স্বপ্ন পূরনের লক্ষে গালিবুর রহমান শরীফ

পায়েল হোসেন রিন্টু, (ঈশ্বরদী ) আসন্ন পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) আসনের জাতীয় সংসদ উপ-নির্বাচনে প্রয়াত ভূমিমন্ত্রীর সুযোগ্য পুত্র ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার তৃণমূল নেতাকর্মীদের আশা ভরসার প্রতীক গালিবুর রহমান শরীফ নৌকার মনোয়ন পাচ্ছেন বলে সবার মুখে সরব হয়ে উঠেছে। গত ২ এপ্রিল এ আসনের ভাষা সৈনিক, বীরমুক্তিযোদ্ধা,মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ঈশ্বরদী বাসীর স্বপ্নপূরনের সাবেক সফল ভূমিমন্ত্রী,পাবনা জেলা আওয়ামীলীগের একাধিক বার নির্বাচিত সভাপতি, ধারাবাহিক ভাবে ৫ বারের জাতীয় সংসদ সদস্য শামসুর রহমান শরীফ ইন্তেকাল করলে এ আসনটি শূন্য হয়। করোনা মহামারির কারণে যথা সময়ে এ আসনটিতে উপ-নির্বাচন হয়নি। আগামী সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে অথবা অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে এ আসনে উপ-নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যদিও নির্বাচনী তফশিল ঘোষনা এখনো হয়নি।সরেজমিনে ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে আওয়ামীলীগ তৃণমূল নেতাকর্মীদের সাথে আলাপ কালে তারা বলছেন, এআসনের উপ-নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন পাচ্ছেন প্রয়াত ভূমিমন্ত্রীর সুযোগ্য পুত্র গালিবুর রহমান শরীফ। শরীফ পরিবারের রাজনৈতিক হাল ধরার মত তার যথেষ্ঠ প্রমান ইতোমধ্যেই জনসম্মুখে এসেছে। সেজন্য তিনি মনোনয়ন পেলে এআসনের আওয়ামী রাজনীতিতে আবার শান্তির সুবাতাস বইবে। প্রয়াত মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ পাবনা-৪ আসনের ১৯৯৬ সাল থেকে ধারাবাহিক ভাবে মৃত্যুর আগমুহুর্ত পর্যন্ত নির্বাচিত সংসদ সদস্য থাকাকালীন ঈশ্বরদী-আটঘরিয়াসহ বৃহত্তর পাবনা জেলায় আওয়ামী রাজনীতিতে সুগন্ধ গোলাপের মত একটি বাগান তৈরি করেছিলেন। যেখানে সাধারন মানুষের চাওয়া পাওয়ার অধিকার ছিল প্রবল। ১৯৯৬ সালের আগে মানুষ দেখেছে রাজনীতির নামে মানুষ হত্যা খুন,গুম সন্ত্রাসী, গুন্ডামীসহ নানা ধরনের অপরাধ মূলক ঘটনা। সন্ধ্যার পরে মেয়েরা নির্বিঘেœ চলাফেরা করতে পারতো না। এঅবস্থার উত্তোরন ঘটিয়ে ছিলেন শামসুর রহমান শরীফ। করোনা মহামারি কালে এই বর্ষিয়ান নেতার মৃত্যু হওয়ায় তার চেহলাম করা সম্ভব না হওয়ায় গালিবুর রহমান শরীফ তার পিতার আত্নার শান্তি কামনা করে ৪০দিন ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ায় ২৫ হাজার গরিব অসহায় কর্মহীন ঘরবন্দি পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী দিয়ে তার প্রয়াত পিতার জন্য দোয়া চেয়েছেন। এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কালে অনেক অসহায় পরিবার গালিবকে জড়িয়ে ধরে কেঁদেছেন এবং তার পিতার মত মহৎ হয়ে তাদের পাশে থাকার আকুতি জানিয়েছেন। গালিবুর রহমান শরীফ মানুষকে আস্বস্থ করেছেন পিতার মত দ্বায়িত্ব পেলে তিনি ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার মানুষের মাঝেই সেবা দিয়ে যাবেন। উচ্চ শিক্ষিত ৩৮ বছর বয়সী সুদর্শন পরিচ্ছন্ন নেতা গালিবুর রহমান শরীফের সাথে আলাপকালে বলেন, আমি লন্ডনসহ অনেক দেশে গিয়েছি। তাদের রাজনীতিক আর্থ সামাজিক অবস্থান থেকে উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডের কৌশল থেকে যা শিখেছি এবং আমার প্রয়াত পিতার সাথে থেকে যা শিখেছি এলাকায় আরো উন্নয়নের জন্য তা ব্যবহার করলে এলাকার মানুষ কষ্টে থাকবেনা। তিনি আরো বলেন, আওয়ামীলীগ একটা বড় দল। এখানে নানা মতের লোক থাকতেই পারে। এই উপ-নির্বাচনে অনেকেই নৌকার মনোনয়ন চাইতেই পারে। কিন্তু কেউতো নৌকার বিরোধীতা করছে না। মনোনয়ন দেবেন মনোনয়ন বোর্ড। এজন্য ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার মানুষ আমার প্রতি যে বিশ্বাস এবং আস্থা রেখেছেন আমিও চেষ্টায় আছি শরীফ পরিবার থেকেই মনোনয়ন পাওয়ার। যেজন্য অপেক্ষা করতে হবে জনগনকে।