প্রধান মেনু

চাটমোহরে ইউপি চেয়ারম্যানসহ ২১ জনের নামে মামলা

পাবনায় চাটমোহরে সোমবার দিবাগত রাতে উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের চড়ইকোল গ্রামে মারপিটের ঘটনা ঘটেছে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম পরশসহ অন্যরা মারপিটের শিকার হয়েছেন। উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের চড়ইকোল গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম পররশ, একই গ্রামের আঃ ওহাবের ছেলে ও সাবেক ইউপি সদস্য বকুল হোসেন, আয়েজ উদ্দিনের ছেলে ইবাদত আলী, ইছাহক আলী ও ইছাহক আলীর ছেলে সাগর মারপিটে আহত হয়েছেন। আহত ছাত্রলীগ নেতাসহ ৫ জন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন।

এ ব্যাপারে থানায় উপজেলার হরিপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মকবুল হোসেন, ইউপি সদস্য ইউনুস আলী ও ২ গ্রাম পুলিশসহ ২১ জনের নামে মামলা হয়েছে। পুলিশ এ ঘটনায় ২ গ্রাম পুলিশসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে। বুধবার গ্রেফতারকৃতদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন হরিপুর ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ বরুলিয়া গ্রামের ইব্রাহিমের ছেলে মিন্টু হোসেন, হাছেন আলীর ছেলে ছানোয়ার হোসেন ছানু, আলী আজগরের ছেলে কদর ও আলহাজ উদ্দিনের ছেলে মোবারক হোসেন।

থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায় সোমবার রাতে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে কমিটি গঠন করাকে কেন্দ্র করে হরিপুর ইউপি সদস্য চড়ইকোল গ্রামের বাসিন্দা ইউনুস আলীর সাথে ছাত্রলীগ নেতা পরশের ভাই আবুল কালাম আজাদের কথা কাটাকাটি ও ধাক্কা ধাক্কি হয়। এনিয়ে বাক বিতন্ডা ও মারপিটের ঘটনা ঘটে। এসময় পরশসহ অন্যরা আহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে এবং ২ গ্রাম পুলিশসহ ৪ জনকে আটক করা হয়।

চাটমোহর থানার ওসি সেখ মো. নাসীর উদ্দিন জানান, আটককৃতদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। দুই পক্ষই থানায় অভিযোগ দিয়েছে। একটি মামলা রজু হয়েছে।