প্রধান মেনু

চাটমোহরে পুলিশকে করোনা’র ভয় দেখিয়ে গ্রেফতার এড়ানোর চেষ্টা

পাবনার চাটমোহরে সোলায়মান হোসেন নামের দুটি মামলায় অয়ারেন্ট ভূক্ত আসামীকে পুলিশ
গ্রেফতার করতে গিয়ে বিড়ম্বনায় পড়েন। গ্রেফতারের মূহুর্তে আসামী নিজেকে করোনা রোগী বলে দাবী করতে থাকেন। তবে বেরসিক
পুলিশ শেষ পর্যন্ত সব ভয় ভীতি উপেক্ষা করে তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। রবিবার রাত ১০টার দিকে পৌর শহরের বালুচর মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। আসামী সোলায়মান হোসেন ঐ মহল্লার মৃত. বারু প্রামাণিকের ছেলে।
থানা পুলিশ ও এলাকাবাসীর তথ্যে জানা যায়, দুটি মামলায় ওয়ারেন্ট ভূক্ত আসামী সোলায়মান দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পরে নিজ বাড়িতে গত কয়েকদিন ধরে অবস্থান করছে বিষয়টি পুলিশ জানতে পারে। রবিবার রাতে তাকে গ্রেফতার করতে পুলিশ তার বাড়িতে অভিযানে যায়। পুলিশী উপস্থিতি টের পেয়ে সে বাড়ির ভেতর থেকে নিজেকে করোনা রোগী দাবী করে তাদের চলে যেতে বলেন। এরপর তিনি পুলিশ কে প্রধান মন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ.টি ইমামের আত্মীয় পরিচয় দিয়ে উল্টো থানা পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা করার হুমকি দেন। এরপরে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়।
ঘটনার বিষয়ে চাটমোহর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেখ নাসীর উদ্দিন জানান, দুটি মামলার ওয়ারেন্ট ভূক্ত আসামী সোলায়মান
একজন বিখ্যাত প্রতারক। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে পুলিশ তার নিজ বাড়ি থেকে আটকের সময় সে পুলিশের সাথে দূর্ব্যবহার করেন এবং নিজেকে করোনা রোগী বলে দাবী করেন। থানায় নিয়ে আসার পর নিজের মুখের মধ্যে বার বার আঙ্গুল ঢুকিয়ে রক্তাক্ত করলে তাকে প্রথমে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে পাবনা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। সোমবার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়।