প্রধান মেনু

চাটমোহরে বিয়ের প্রলোভনে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ – যুবক গ্রেফতার

পাবনার চাটমোহরে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ও বিয়ের প্রলোভনে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষন ও ওই ছাত্রীর অশ্লীর ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ।
২৯ জুন সোমবার রাতে ওই ছাত্রীর পিতা চাটমোহর থানায় ২০১২ সালের পর্ণোগ্রাফী আইন এবং নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ১৫/২০২০। পুলিশ রাতেই মামলার একমাত্র আসামি উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের চড়ইকোল গ্রামের রবিউল করিম মোল্লার ছেলে রনি মোল্লা (১৯) কে গ্রেফতার করেছে।

৩০ জুন মঙ্গলবার তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। একই দিন ওই ছাত্রীর ডাক্তারী পরীক্ষা করা হয়েছে।
মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে,হরিপুর ইউনিয়নের রামপুর গ্রামের বাচ্চু সরকারের মেয়ে ও চড়ইকোল পুকুরপাড় দাখিল মাদ্রাসার ছাত্রী (২০২০ সালের পাশকৃত) বিউটি খাতুনের (১৭) সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন রনি মোল্লা। বিগত এক বছর যাবত প্রেম চলাকালে রনি বিয়ের প্রলোভনে বিউটির সাথে একাধিকবার দৈহিক সম্পর্ক স্থাপন করে। গত ২০ জুন রনি বিউটির বাড়িতে গিয়ে রনি পুনরায় বিয়ের কথা বলে ধর্ষন করে। একপর্যায়ে বিয়ের জন্য চাপ দিলে রনি ২৫ জুন ওই মাদ্রাসা ছাত্রীর অশালীল ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। এ ঘটনার পর স্থানীয়ভাবে বিষয়টির মীমাংসার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু রনি ও তার পরিবার বিয়ে করতে অস্বীকার করলে অসহায় বিউটির পিতা বাচ্চু সরকার চাটমোহর থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রনিকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে।

চাটমোহর থানার ওসি মোঃ আমিনুল ইসলাম জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর পর্ণোগ্রাফী ও নারী ও শিশু নির্যাতর প্রতিরোধ আইনে মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত রনিকে আটক করা হয়েছে। ওই ছাত্রীর জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়েছে।