প্রধান মেনু

চাটমোহরে সরকারি গাছ কাটা মামলায় ৭ জন গ্রেফতার

পাবনার চাটমোহর উপজেলায় সরকারি গাছ কাটার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় কলেজের গর্ভনিং বডির ৭ জন সদস্যকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠিয়েছে থানা পুলিশ।

১৫ জুলাই বুধবার দিবাগত রাতে অভিযান চালিয়ে উপজেলার হরিপুর গ্রামের বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। আজ ১৬ জুলাই বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, উপজেলার হরিপুর দূর্গাদাস স্কুল এন্ড কলেজের গভর্নিং বডির সদস্য আতিকুল ইসলাম, শাহজালাল উদ্দিন, মোশারফ হোসেন, আজাদ হোসেন, প্রণবী রানী, সিরাজুল ইসলাম ও গোলজার হোসেন।

চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম জানান, উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বুধবার দুপুরে এজাহার দায়েরের পর মামলা হিসেবে নথিভূক্ত করা হয়েছে। ইতিমধ্যে মামলার ৭ আসামীকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। আর মামলার বাকি দুই আসামী কলেজের গর্ভনিং বডির সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মকবুল হোসেন ও অধ্যক্ষ আলী হায়দার
পলাতক রয়েছেন।

প্রসঙ্গত, হরিপুর দূর্গাদাস স্কুল এন্ড কলেজের ভেতরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দীর্ঘ পুরানো ভবনটি জরাজীর্ণ হয়ে পড়ায় অতি সম্প্রতি সেখানে একটি নতুন ভবনের অনুমোদন হয়। কিন্তু ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়ে এবং দরপত্র ছাড়াই কলেজের আশপাশে ১৪টি গাছ কলেজের গর্ভনিং বডির সভাপতি ও অধ্যক্ষসহ অন্য সদস্যরা রেজুলেশনের মাধ্যমে স্থানীয় এক ব্যক্তির কাছে বিক্রি করেন। এর মধ্যে কাটা পড়ে স্কুলের পাশে সরকারি ৬টি গাছও।

এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে ইউএনও গাছ কাটা বন্ধ করেন এবং তদন্ত করে বিষয়টির সত্যতা পায়। এরপর বুধবার দুপুরে হরিপুর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা বিপুল কুমার জোয়ার্দ্দার বাদী হয়ে কলেজের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মকবুল হোসেন ও অধ্যক্ষ আলী হায়দার সরদারসহ ৯ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-০৯।