প্রধান মেনু

চালুর ব্যাপারে প্রস্তুতি নিচ্ছে রেলপথ মন্ত্রণালয়

আগামী ৫ মে’র পর থেকে রেল যোগাযোগ চালুর ব্যাপারে প্রস্তুতি নিচ্ছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। করোনা পরিস্থিতিতে গত ২৬ মার্চ রেল চলাচল বন্ধ করা হয়।

আস্তে আস্তে দেশে চলমান অঘোষিত লকডাউন শিথিল করার পথে হাঁটছে সরকার। ইতোমধ্যেই পোশাক কারখানা চালুও করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে গণপরিবহন ও দূরপাল্লার বাসও চালু করা হবে। দু–এক দিনের মধ্যেই লাগেজ ভ্যান চালু হতে পারে। এরপর সীমিতভাবে চালু করা হতে পারে আন্তঃনগর ট্রেন।

সূত্র জানায়, সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে সিদ্ধান্ত পেলেই ট্রেন চলাচল শুরু হবে। তবে আগামী ৫ মে’র পর সরকার অঘোষিত লকডাউন তুলে নিলে রেল চলাচল শুরু করার বিষয়ে প্রস্তুতি নিচ্ছে রেলপথ মন্ত্রণালয়।

এরই অংশ হিসেবে সোমবার ২৭ এপ্রিল) রেলের মহাপরিচালক মো. শামসুজ্জামানের সভাপতিত্বে রেল ভবনে একটি প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সরকারের সিদ্ধান্ত পেলে দুই দিনের মধ্যেই যাতে ট্রেন চালু করা যায়, সেই প্রস্তুতি নিয়ে রাখার বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়।

সূত্র জানায়, শুরুতে আন্তঃনগর ট্রেনের সব আসনের টিকিট বিক্রি না করার বিষয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়। অর্থাৎ শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে যাত্রী পরিবহন করার জন্যে কিছু কিছু আসন ফাঁকা রেখে রেখে টিকিট বিক্রির চিন্তা করা হচ্ছে। একটি বগিতে এবং পুরো ট্রেনে কী পরিমাণ টিকিট বিক্রি করলে দূরত্ব বজায় রাখা যাবে, এ বিষয়ে একটি পরিকল্পনা তৈরির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে মেকানিক্যাল বিভাগের পরিচালক মিজানুর রহমানকে। এছাড়া যেসব ট্রেনের টিকিট অনলাইনে বিক্রি করা হচ্ছে, তা শতভাগ অনলাইনে বিক্রির বিষয়টিও পরিকল্পনায় আছে, যাতে স্টেশনের টিকিট কাউন্টারে ভিড় না হয়।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন সাধারণ ছুটির পর প্রথম অফিস করবেন। ওই দিন বেলা ১১টায় ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বৈঠক ডেকেছেন মন্ত্রী। সেখানেই রেল চালুর বিষয়ে আলোচনা হতে পারে।

এ বিষয়ে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, ট্রেন চালুর প্রস্তুতি আমাদের আছে। সরকার লকডাউন তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলে ট্রেন চালু করে দিতে পারবো। বৃহস্পতিবারের বৈঠকে রেলের বিভিন্ন প্রকল্পের বিষয়ে আলোচনা করার পাশাপাশি ট্রেন চালু হলে কীভাবে যাত্রীদের সুরক্ষা দেওয়া যায়, সে বিষয়ে আলোচনা হবে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রেলের মহাপরিচালক মো. শামসুজ্জামান বলেন, কবে যাত্রীবাহী ট্রেন চালু হবে, সেটা সরকারের উচ্চপর্যায়ের সিদ্ধান্তের ব্যাপার। তবে সিদ্ধান্ত এলেই যাতে চালু করা যায়, সেই বিষয়ে আমর প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছি।