প্রধান মেনু

জুয়া খেলতে বাধা দেয়ায় ইউপি সদস্যকে পিটিয়ে জখম পাবনার ফরিদপুরে

পাবনার ফরিদপুরে জুয়া খেলতে বাধা দেয়ায় একজন ইউপি সদস্যকে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করেছে জুয়ারু চক্রের সদস্যরা। উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের খাগড়াবাড়িয়া গ্রামে রবিবার রাতে এই ঘটনা ঘটে। আহত ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলম ফরিদপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের (খাগরবাড়িয়া) সদস্য। এ ঘটনায় সোমবার সকালে ওই ইউপি সদস্য দুই জনের নামসহ ১০/১২ জন অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

লিখিত এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার খাগরবাড়িয়া গ্রামের একটি নির্জন বাগানে বেশ কিছুদিন ধরে কয়েকজন বিপথগামী যুবক জুয়ার আসর বসায়। জুয়ার আসরে ওই যুবকরা মাদক সেবন করে বলেও অভিযোগ আছে। এ অবস্থায় ওই গ্রামের ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলমসহ কয়েকজন গণ্যমান্য ব্যক্তি ওই বাগানে জুয়ার আসর বন্ধ করে দেন। এতে ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলমের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে জুয়ারু চক্রের সদস্যরা। রবিবার রাতে জুয়া খেলার সঙ্গে জড়িত পার্শ্ববর্তী খলিশাদহ গ্রামের সহোদর আরিফ মোল্লা ও জালাল মোল্লা ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলমকে কৌশলে বাড়ির বাইরে একটি মাঠের মধ্যে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে তাদের নেতৃত্বে  কয়েকজন যুবক হাসুয়া ও লাঠি নিয়ে জাহাঙ্গীরের উপর হামলা করে। এতে জাহাঙ্গীর আলমের মাথা কেটে গিয়ে মারাত্মক জখম হয়। এসময় তার চিৎকারে লোকজন ছুটে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসকরা তার মাথায় নয়টি সেলাই দেন। তবে ইউপি সদস্য এখন অনেকটাই বিপদমুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। পরে এ ঘটনায় সোমবার সকালে ফরিদপুর থানায় মামলা দায়ের করেন ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলম।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গ্রামের একজন প্রধান বলেন, অভিযুক্ত যুবকরা প্রায়ই গ্রামের একটি বাগানে এসে জুয়া খেলে। এছাড়া তারা মাদক কারবারের সঙ্গেও জড়িত। এ নিয়ে তাদেরকে বাধা দেয়ায় ইউপি সদস্যের উপর হামলা করেছে ওই বিপথগামী যুবকরা।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই রঞ্জু জানান, একজন ইউপি সদস্যকে কয়েকজন যুবক মারপিট করে আহত করেছেন। এ ঘটনায় ওই ইউপি সদস্য জুয়া খেলতে বাধা দেয়ায় তাকে মারপিট করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত শেষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।