প্রধান মেনু

তাহেরপুর পৌর আ’লীগের সম্মেলনের সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ আহত ৮

রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার তাহেরপুর পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড চকিরপাড়া অবস্থিত
নতুন অডিটোরিয়ামে আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রতিপক্ষের হামলায়
সাংবাদিকসহ ৮জন আহত হয়েছে। আহতদের তাহেরপুর ক্লিনিক ও উপজেলা স্বাস্থ্য
কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এসময় হামলাকারীরা সময় টিভির ক্যামেরা পারসন
হাবিবুর রহমান পাপ্পুকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত এবং তার ক্যামেরা কেড়ে নিয়ে
ভাঙচুর করা হয়। পরে স্থানীয় সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পাপ্পুকে উদ্ধার করে
নিয়ে যান। অভিযোগ উঠেছে পুলিশের সামনে হামলাকারীরা হামলা করলেও পুলিশ
নিষ্ক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানাযায়,(১৫ ফেব্রুয়ারি)
শনিবার পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড তাহেরপুর ডিগ্রি কলেজের দক্ষিনে অবস্থিত নতুন
অডিটোরিয়ামে আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের আয়োজন করে পৌর আ’লীগ।
এসময় পৌরসভা আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন চলাকালিন বেলা সাড়ে ১২ টার
সময় তাহেরপুর পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের নুরুল হুদার ছেলে আব্দুর রাজ্জাক ওরফে আর্ট
বাবু তার লোকজন নিয়ে তাহেরপুর ডিগ্রী কলেজে স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ জেলা
আ’লীগের নেতাদের সঙ্গে দেখা করতে আসেন। এ সময় তাহেরপুর পৌরসভার মেয়র ও
পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদের সমর্থকেরা সম্মেলনস্থলে
আট বাবু কেন আসলো তা নিয়ে তর্কে জড়িয়ে পড়েন। এবং আর্ট বাবুর
সমর্থকদের উপর তারা হামলায় চালায়। এবং লাঠিপেটা করে তাদেরকে সেখান থেকে
বের করার চেষ্টা করে। এসময় সময় টিভির ক্যামেরা পারসন হাবিবুর রহমান পাপ্পু
ছবি তুলতে গেলে হামলাকারীরা তার উপর হামলা চালিয়ে ক্যামেরা ভাঙচুর করে। পরে
স্থানীয় সাংবাদিকেরা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করেন। এসময় ত্রি-বার্ষিক
সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন,রাজশাহী জেলা আ’লীগের সভাপতি ও সাবেক সংসদ
সদস্য মেরাজ উদ্দিন মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য আব্দূল ওয়াদুদ
দারা,স্থানীয় সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক ও সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিনের
উপস্থিতিতে এবং পুলিশের সামনেই এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে তারা।
এদিকে,আহতদের মধ্যে বিষুপাড়া গ্রামের ইমান আলী ও মিঠু পিয়াদাকে বাগমারা
স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া তাহেরপুর পৌর
ছাত্রলীগ নেতা মিলন,নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার মাধনগর ইউনিয়ন আ’লীগের বন ও
পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক হাফিজুর রহমান হাফিজ,মাধনগর ইউপি সদস্য ও আ’লীগ
নেতা ডলার মাহমুদ ও পবার আ’লীগ নেতা কোরবান আলীকে প্রাথমিক ভাবে
চিকিৎসা দেয়া হয়। এবিষয়ে বাগমারা থানার (ওসি) আতাউর রহমান জানান,হামলার
ঘটনার সঙ্গে যারাই জড়িত থাকুক না। তা তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনিগত
ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। তবে থানায় সন্ধ্যা পর্যন্ত কনো মামলা দায়ের করা হয়নি বলে
তিনি জানান