প্রধান মেনু

তিনবন্ধুর অসাধারণ দেশপ্রেম, শ্রদ্ধা জানাতে ককসিটের শহীদ মিনার

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি.
উত্তরাঞ্চলের মধ্যে প্রথম বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিবাদকারী নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার তিনবন্ধু প্রবীর বর্মন, অশোক পাল ও নির্মল কর্মকার। পৌর সদরের চাঁচকৈড় বাজার এলাকায় প্রতিবারের ন্যায় এবারও তাদের বাড়ির সামনে ককসিট দিয়ে ভ্রাম্যমান শহীদ মিনার স্থাপন করেন। মাতৃভাষার প্রতি গভীর ভালবাসা থেকে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতেই তিনবন্ধুর এ আয়োজন।
একুশে ফেব্রুয়ারীর প্রথম প্রহরে ফুলের শ্রদ্ধাজ্ঞাপন শেষে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতভাবে উত্তোলন করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুর রাজ্জাক। উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পন শেষে গুরুদাসপুর পৌর মেয়র মো. শাহনেওয়াজ আলী চাঁচকৈড় বাজারের ওই ভ্রাম্যমান শহীদ মিনারেও শ্রদ্ধা জানান। তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের অদলে তৈরি করা এই শহীদ মিনার। দেখলে মনে হয় না এটি ভ্রাম্যমান।
ওই শহীদ মিনারে গিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তমাল হোসেন বলেন, তিনবন্ধুর অসাধারণ দেশপ্রেম। তাদের নির্মিত শহীদ মিনারের সামনে ভাষা শহীদ সালাম, বরকত, শফিউর ও রফিকের ছবি স্থান পেয়েছে। সামনে রয়েছে কাঠের গুড়া দিয়ে তৈরি বাংলাদেশের মানচিত্র। মাইকে বাজানো হচ্ছে বঙ্গবন্ধু ও একুশের গান।
প্রবীর বর্মন বলেন, আমার ছোট ভাই জগো বর্মনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান স্বীকৃতি টাইমসের আর্থিক সহায়তায় আগামী প্রজম্মকে একুশের চেতনায় আবদ্ধ করতেই আমরা প্রতিবছর এই আয়োজন করে থাকি।#