প্রধান মেনু

নাটোরে নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলসে গণহত্যা দিবস পালিত

নাটোর প্রতিনিধি–নাটোরের লালপুর উপজেলার গোপালপুর নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলস লিমিটেডে গণহত্যা দিবস পালন করা হয়েছে ।। মঙ্গলবার ৫ মে নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলস লি. কর্তৃপক্ষের আয়োজনে শহীদদের স্মৃতির স্মরণে পু®পস্তবক অর্পণ, আলোচনা সভা ও মিলাদ মহাফিলসহ নানান কর্মসূচী মধ্য দিয়ে যথাযথ মর্যাদায় দিবসটি পালন করা হয়।
জানা যায়, ১৯৭১ সালের এই দিনে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে পাক হানাদার বাহিনী সুগার মিল অবরুদ্ধ করে তৎকালীন প্রশাসকসহ ৪২ কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ শতাধিক লোককে ব্রাশ ফায়ার করে গণহত্যা করে। স্বাধীনতার পর শহীদদের সলিল সমাধির নীরব সাক্ষী গণহত্যা স্থলের পুকুরটির নাম করণ করা হয়েছে ‘শহীদ সাগর’। লালপুরবাসীর জন্য এটি একটি শোকাবহ স্মরণীয় দিন। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সারাদেশে উৎপাদন যন্ত্র অচল থাকলেও হানাদার বাহিনীর নাটোর ক্যা¤েপর মেজর শেরওয়ানী খানের আশ্বাসে এলাকার আখ চাষীদের স্বার্থ বিবেচনা করে নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলের তৎকালীন প্রশাসক লেঃ আনোয়ারুল আজিম মিলের উৎপাদন অব্যাহত রাখেন। কিন্তু হানাদার মেজর তার ওয়াদার বরখেলাপ করে। বর্বর পাক বাহিনী মিলের সব গেটে তালা লাগিয়ে অবরুদ্ধ করে অবাঙালীদের যোগসাজশে শতাধিক বাঙালীদের শনাক্ত করে মিলের ১নং গেট সংলগ্ন পুকুর ঘাটে নিয়ে যায়। তাদের সারিবদ্ধভাবে দাঁড় করিয়ে নির্মমভাবে ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা করে লাশগুলো পুকুরে ফেলে দেয়। ওই দিনই হানাদার বাহিনী গোলাপপুর বাজার এলাকায় আরও ছয় জনকে গুলি করে হত্যা করে।

এ উপলক্ষে ৫ মে শহীদদের স্মরণে লালপুর বাসীর কাছে এটি একটি শোকাবহ স্বরণীয় দিন। এই দিন উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার সকালে গোপালপুর ঐতিহ্যবাহী কড়ইতলায় শহীদদের স্বরনে ক্ষুদ্র পরিসরে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে গোপালপুর পৌর বাজার বণিক সমিতি। একই সাথে গোপালপুর পৌর বাজার বণিক সমিতির উদ্যোগে করোনায় কর্মহীন হওয়া বাজারের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।
এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইসাহাক আলী।
এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পৌর বণিক সমিতির সভাপতি ও নাটোর জেলা পরিষদ সদস্য বদিউর রহমান বদর, গোপালপুর পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম মোলাম, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য বাবুল আকতার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক স¤পাদক সাইফুল ইসলাম সহ বণিক সমিতির সকল ইউনিটের সভাপতি ও স¤পাদক মন্ডলী।