প্রধান মেনু

পরীক্ষার ফাঁকে আধা ঘণ্টার ব্রেকে সন্তান জন্ম দিয়ে ফের পরিক্ষার হলে

এমনও হয়। অনন্যা হয়তো এদেরই বলা হয়। শুধু সন্তানের জন্ম নয়- দৃঢ়প্রতিজ্ঞ তরুণী ফ্যাতোমাতা কৌরোমা কোন্ডে নিজের পরীক্ষা শেষ করেছেন, যেটা নিয়ে প্রায় এক বছর ধরে প্রস্তুতি নিয়েছিলেন তিনি। ১৮ বছরের ওই তরুণী গিনির পূর্ব মামো এলাকার বাসিন্দা। হাই স্কুল ডিপ্লোমা পরীক্ষার আগেই সন্তানসম্ভবা হয়ে পড়েন তিনি। কিন্তু পরীক্ষায় তাকে বসতেই হবে। পদার্থবিদ্যা পরীক্ষার দিনই প্রসব বেদনা শুরু হয় তার। স্থানীয় হাসপাতালে যান তিনি। সেখানেই ১০ মিনিটের মধ্যে পুত্রসন্তানের জন্ম দেন তিনি। পরীক্ষার হল থেকেই হাসপাতালে গিয়েছিলেন তিনি। মোট ৪০ মিনিটের মধ্যেই ছেলের জন্ম দিয়ে ফের পরীক্ষার ডেস্কে ফিরে আসেন তিনি।
বাড়িতে তিনি কিছুই জানাননি। কারণ জানালে তাকে পরীক্ষা দিতে যেতে নিষেধ করতেন পরিবারের সদস্যেরা। কিন্তু ছেলের মা হওয়ার পাশাপাশি পরীক্ষাটি শেষ করাও খুব জরুরি ছিল কোন্ডের কাছে। তিনি বলেছেন, ব্যাচেলর ডিগ্রির জন্য সারা বছর প্রস্তুতি নিয়েছি। এই একটা পরীক্ষা বাদ দিলে আমার ডিগ্রিটা জলে চলে যেত। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পরে তাকে এখন সবাই মিলে এক অসাধারণ মহিলার শিরোপা দিয়েছেন। স্কুল, পরিবার ও বন্ধুরাও তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, পশ্চিম আফ্রিকার গিনিতে এ ঘটনায় বেশ চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে আলোচনায় আসার পর বিশ্ব গণমাধ্যমে তা স্থান পায়। সূত্র : বিবিসি ও এই সময়।