প্রধান মেনু

পাবনায় দুদিন ব্যাপী লালন স্মরণোৎসব

“এমন সমাজ কবে গো সৃজন হবে, যেদিন হিন্দু মুসলমান বৌদ্ধ খ্রিস্টান জাতি গোত্র
নাহি রবে।” লালন ফকিরের এই মহান বাণী নিয়ে পাবনায় ৯ম দুদিন ব্যাপী লালন
স্মরণোৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। লালন স্মৃতি পরিষদ পাবনা আয়োজিত উৎসব শনিবার রাতে মঙ্গল প্রদীপ জ্বালিয়ে উদ্বোধন করেন সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্স।
লালন স্মৃতি পরিষদের সভাপতি জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে
আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ম-লীর সদস্য সাবেক দুদক কমিশনার বীর মুক্তিযেদ্ধা সাহাবুদ্দিন চুপ্পু। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন সরকারি এডওয়ার্ড কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর হুমায়ূন কবির মজুমদার, পুলিশ সুপার শেখ রাফিকুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা বেবী ইসলাম, বিশিষ্ট বংশী বাদক গাজী আব্দুল হাকিম, পাবনা প্রেসক্লাব সভাপতি অধ্যাপক শিবজিত নাগ ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী রুহুল আমিন বিশ্বাস রানা, লালন স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম মণি। আলোচনা সভা শেষে বিশিষ্ট লালনগীতি শিল্পী ফরিদা পারভীন গভীর রাত পর্যন্ত লালন সাঁইয়ের গান পরিবেশন করেন।
গতকাল রবিবার অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিনে বিশিষ্ট সাংবাদিক লেখক হাবিবুর রহমান
স্বপনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক কুষ্টিয়া ইমলামী বিশ্ব বিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড. আনোয়ারুল করীম। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পাবনা জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ, পাবনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রেজাউল রহিম লাল, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী আতিয়ুর রহমান। সঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পী
টুনটুন বাউল ও তার সহশিল্পীবৃন্দ এবং পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পুলিশ সুপার পদন্নোতিপ্রাপ্ত ) গৌতম কুমার বিশ্বাস। এছাড়াও স্থানীয় শিল্পীবৃন্দ সংগীত পরিবেশন করেন। দুদিন ব্যাপী লালন স্মরণোৎসবে এডওয়ার্ড কলেজ মাঠ ছিল দর্শক শ্রোতায়
পরিপূর্ণ।