প্রধান মেনু

পাবনা থানা চত্ত্বরে ধর্ষকের সাথে ধর্ষিতার বিয়ে পুলিশের এস আই ইকরামুল হকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত অনুষ্ঠিত

পাবনা প্রতিনিধি ঃ পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেড়া সার্কেল এর কার্যালয়ে রোববার দুপুরে পাবনা থানার সাময়িক বরখাস্তকৃত এস আই ইকরামুল হকের বিরুদ্ধে দায়ের কৃত পুলিশের বিভাগীয় মামলার তদন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে। পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেড়া সার্কেল জিল্লুর রহমান মামলায় অভিযুক্ত এস আই এবং ভিকটিম সহ স্বাক্ষীদের স্বাক্ষর গ্রহন করেন। এ সময় সাময়িক বরখাস্তকৃত পাবনা থানার এস আই ইকরামুল হক, মামলার ভিকটিম সহ স্বাক্ষীগন উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, চলতি বছরের গত ৬ সেপ্টেম্বর রাতে পাবনার সদর উপজেলার দাপুনিয়া ইউনিয়নের “গণধর্ষনের শিকার গৃহবধুর সাথে” পাবনা সদর থানার চত্ত্বরে একজন ধর্ষকের সহিত ধর্ষিতার বিয়ে দেওয়ার ঘটনায় দেশ ব্যাপি চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ায় এ সম্পর্কে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পাবনা জেলা পুলিশ প্রশাসন প্রথমে মামলা তদন্ত থাকা পাবনা থানার এস আই ইকরামুল হককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত এবং পাবনা থানার ওসি ওবায়দুল হককে থানা থেকে প্রত্যহার করে নেন। পরবর্তীতে মন্ত্রীপরিষদ টিমের তদন্তের পর পুলিশের সদর দপ্তর থেকে ওসি ওবায়দুল হককেও সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়। এ ঘটনার পর পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ গত ২৭ অক্টোবর পাবনা থানার এস আই ইকরামুল হক এর বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়ের করেন। পাবনা জেলার বিভাগীয় মামলা নং-০৯/১৯, পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেড়া সার্কেল জিল্লুর রহমানের উপর মামলা তদন্তের দায়িত্ব অর্পন করা হয়। এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেড়া সার্কেল জিল্লুর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি বিভাগীয় তদন্তের কথা নিশ্চিত করেন।