প্রধান মেনু

বাগমারায় আ’লীগ নেতাসহ ২জনকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টায় আটক ২

রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় সবসার দিঘিতে মাছ চাষ নিয়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এক আ’লীগ নেতাসহ ২জনকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসী বাহিনীরা। এঘটনায় আহতদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। পরে আ’লীগ নেতার অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাপাতালে ভর্তি করা হয়। গুরুতর আহত আ’লীগ নেতার নাম মোকছেদ আলী প্রামানিক।সে উপজেলার ১৩নং গোয়ালকান্দি ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের আ’লীগের সভাপতি। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে কর্তব্যরত চিকিৎসক। বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার গোয়ালকান্দি ইউনিয়নের কনোপাড়া হাইস্কুল মাঠ এলাকায় এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। পরে খবর পেয়ে বাগমারা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে হামলার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ২ জনকে আটক করেছে। আটকদকৃতরা হলেন,মোকছেদ সরদার (৩৪),দেলবর হোসেন সরদার (৪২) উভয়ের পিতা পলয় সরদার। প্রত্যক্ষদর্শী ও থানা পুলিশ সুত্রে জানা যায়,গত (২২ এপ্রিল) বুধবার দিন গত রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার মারিয়া ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া গ্রাম থেকে আ’লীগ নেতা মকছেদ আলী, সান্টু ও বল্টু এই তিন জন,আওয়ামীলীগের দু পক্ষের একটি ঝামেলা শেষ করার পর মটরসাইকেল যোগে কনোপাড়া নিজ বাড়ির দিকে যখন রওনা হন তার তিন মিনিট পর রাত ১১.৩৩ মিনিটের দিকে কনোপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের পশ্চিম পাশের রাস্তায় একটি বুনের ভিটা থেকে ২৫ থেকে ৩০ জন সন্ত্রাসী বাহিনীর একটি দল বের হয়ে পিস্তল,চাইনিস কুড়াল,হাসুয়াসহ ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাদেরকে মটরসাইকেল রোধ করে এলোপাতাড়ি ভাবে কুপাতে থাকে। এসময় মকছেদ ও সান্টু মাটিতে লুটিয়ে পড়লে হামলাকারিরা তাদেরকে মৃত ভেবে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। পরে এলাকার লোকজন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে এসে তাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে বাগমারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এবং সেখানে আ’লীগ নেতা মকছেদ আলীর অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাপাতালে ভর্তি করা হয়। এঘটনায় ২১ জনকে আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে আহত সান্টু জানান,পুলিশ কনোপাড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে তিনজন আসামীকে গ্রেফতার করলেও দুইজনকে জেলহাজতে প্রেরন করেছে। আর আনিসুর রহমান নামের আরেক আসামীকে অন্য মামলায় চালান দিয়েছে। এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ত (ওসি) আতাউর রহমান বলেন,সবশার দিঘি নিয়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পুর্ব শত্রুতার জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ রাতেই ২ দুর্বৃত্তকে আটক করেছে। এবং তাদেরকে জেলহাজতে প্রেরন করা হয়েছে। আর বাকি আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।