প্রধান মেনু

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু আজ

টঙ্গীর তুরাগ নদের তীরে আজ শুক্রবার শুরু হচ্ছে তাবলিগ জামাতের ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। তাবলিগ জামাতের শীর্ষ মুরুব্বি ভারতের মাওলানা মুফতি শেহজাদের আ’ম বয়ানের মধ্যদিয়ে শুরু হবে মাওলানা সাদ কান্ধলভী অনুসারিদের ইজতেমা।

১৯ জানুয়ারি দুপুরে আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে ইজতেমা। ইজতেমাকে সামনে রেখে এরই মধ্যে ময়দানের সব কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের ঢল এখন টঙ্গীমুখী। আজ ইজতেমা ময়দানে দেশের বৃহত্তম জুমার জামাত অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশের মাওলানা মোশারফ হোসেন জুমার জামাতের ইমামতি করবেন বলে জানা গেছে।

দেশের ৬৪টি জেলার মুসল্লিরা তাদের জন্য নির্ধারিত খিত্তায় অবস্থান নিয়ে ইবাদত বন্দেগিতে মশগুল রয়েছেন। কোন কোন জেলার মুসল্লি­ কোন খিত্তায় অংশ নেবেন সে দিক-নির্দেশনাও এরই মধ্যে দেওয়া হয়েছে। ময়দানে মুসল্লিদের অবস্থানও জেলাওয়ারি নির্দিষ্ট খিত্তায় (ভাগে) বিভক্ত করা হয়েছে।

দ্বিতীয় পর্বে শতাধিক দেশের প্রায় ১০-১২ হাজার বিদেশি মেহমান আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহণ করবেন বলে আয়োজক কমিটির মুরুব্বিরা আশা করছেন। গতকাল বিকাল পর্যন্ত অর্ধশতাধিক দেশের প্রায় ৩ হাজার ১৯ জন বিদেশি মেহমান ময়দানে তাদের জন্য নির্ধারিত নিবাসে অবস্থান নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বিশ্ব ইজতেমার মিডিয়া সমন্বয়কারী হাজী মো. মনির হোসেন। ভারত, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া ও কাশ্মীর থেকে সর্বোচ্চ সংখ্যক মুসল্লি ময়দানে অবস্থান নিয়েছেন বলে জানা গেছে। ভারতের নাগরিকত্ব বিলের কারণে ভিসা জটিলতায় অনেক চিল্লাধারী ইজতেমার সাথি বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারছেন না বলেও জানান তারা।

দেশি-বিদেশি ইসলামী চিন্তাবিদ ও ওলামায়ে কেরামগণ ছয় উসুল যথা-ঈমান, নামাজ, এলেম ও জিকির, একরামুল মুসলিমীন, তাসহীহে নিয়ত, দাওয়াত ও তাবলিগ সম্পর্কে বিভিন্ন দিক-নির্দেশনামূলক মূল্যবান বয়ান রাখবেন। মূল বয়ান সঙ্গে সঙ্গে বিভিন্ন ভাষায় তরজমা করা হবে।

দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমায় বাংলাদেশের শীর্ষ মুরুব্বিদের অবস্থান : দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে অবস্থান নিয়েছেন বেশ কয়েকজন শীর্ষ মুরুব্বি। তারা হলেন—মাওলানা সাদ আহমদ কান্ধলভীপন্থি বিশ্ব ইজতেমা বাংলাদেশের শূরা সদস্য সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম, প্রকৌশলী খান মো. শাহাবুদ্দিন নাসিম, মাওলানা মোজাম্মেল হক, মাওলানা মোশারফ হোসেন, প্রফেসর ইউনুস শিকদার, মাওলানা আশরাফ আলী, মাওলানা আবদুল্লাহ মনছুর প্রমুখ।

দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাযের ৩২ সদস্য বিশিষ্ট জামাত ময়দানে : ইজতেমা দ্বিতীয় দফায় মাওলানা সাদ আহমদ কান্ধলভী মনোনীত দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাযের ৩২ সদস্য বিশিষ্ট একটি জামাত বুধবার বাদ মাগরিব টঙ্গী ইজতেমা ময়দানে এসে পৌঁছেছে। এ জামাতের নেতৃত্বে রয়েছেন দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাযের শূরা সদস্য মাওলানা আব্দুস সাত্তার। জামাতের অপর সদস্যরা হলেন—মাওলানা শামীম আজমী, মাওলানা জামশেদ, মাওলানা মিয়াজী আজমত উল্লাহ, মাওলানা মুফতি শেহজাদ, মাওলানা রিয়াজুর রহমান, মাওলানা ইকবাল হাফিজ প্রমুখ।

ইজতেমা ময়দানে আসার পথে ট্রেনের ধাক্কায় মুসল্লি নিহত : গত বুধবার রাতে টঙ্গী রেলওয়ে জংশনে ট্রেনের ধাক্কায় মো. গোলজার হোসেন (৪০) নামে এক মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। তিনি গাইবান্ধা জেলার ফুলছড়ি থানার টেংরাকান্দি গ্রামের বাসিন্দা। এদিকে ইজতেমা ময়দানে আনছার আলী (৬২) নামে এক মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। তবে তার পরিচয় জানা যায়নি।

বৃহস্পতিবার ময়দানে বয়ান করলেন যারা : ইজতেমা ময়দানে গতকাল বৃহস্পতিবার বাদ জোহর সমবেত মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে ইস্তেকবালি (স্বাগত) বয়ান করেন ভারতের মাওলানা ইকবাল হাফিজ। তার বয়ান বাংলায় তরজমা করেন বাংলাদেশের মাওলানা মুনির বিন ইউসুফ। ইজতেমার আনুষ্ঠানিক বয়ান আজ শুক্রবার বাদ ফজর থেকে শুরু হলেও বৃহস্পতিবার বাদ আসর থেকেই বয়ান শুরু করেন শীর্ষ মুরুব্বিরা। বাদ আসর বয়ান করেন তাবলিগ জামাতের বাংলাদেশের শূরা সদস্য সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম। বাদ মাগরিব বয়ান করেন দিল্লি নিজামুদ্দিন মারকাযের মাওলানা শামীম আজমী। তার বয়ান বাংলায় তরজমা করেন স্বাগতিক বাংলাদেশের মাওলানা জিয়া বিন কাসিম।

আইনশৃঙ্খলা জোরদার : ইজতেমা মাঠের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে গতকাল থেকে প্রায় ৮ হাজার পুলিশসহ র্যাব, সাদা পোশাকধারী বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে।

মাসলেহাল জামাত : ইজতেমা ময়দানে আগত মুসল্লিদের নতুন যে কোনো সমস্যা সমাধানকল্পে ময়দানের দক্ষিণ-পূর্ব কোণে আশরাফ সেতুর পেছনে মাসলেহাল জামাতের কামরা তৈরি করা হয়েছে। সেখানে বসে ঐ জামাতের মুরুব্বিরা উদ্ভূত সমস্যার সমাধান দিচ্ছেন।

হারানো প্রাপ্তিবিষয়ক আহ্বান : কোনো কিছু পাওয়া গেলে এবং কোনো বয়োবৃদ্ধ মুসল্লি পথ হারিয়ে ফেললে তাদের ময়দানের পশ্চিমপাশে স্থাপিত হারানো ও প্রাপ্তির কন্ট্রোলরুমে জমা দিতে বলা হয়েছে।