প্রধান মেনু

বড়াইগ্রামে রোগ যন্ত্রণা সইতে না পেরে স্কুল ছাত্রীর আতœহত্যা

বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি
নাটোরের বড়াইগ্রামে রোগ যন্ত্রণা সইতে না পেরে তানজিলা খাতুন শিল্পী (১৬) নামে এক স্কুল ছাত্রী গলায় ফাঁস নিয়ে আতœহত্যা করেছে। সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার গোপালপুর উত্তরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিল্পী গোপালপুর গ্রামের সিরাজুল ইসলামের মেয়ে। সে গোপালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী ছিল।
স্থানীয় ইউপি সদস্য ইয়ারুল ইসলাম জানান, তানজিলা খাতুন শিল্পী দীর্ঘদিন যাবৎ তীব্র পেটের ব্যাথাসহ বিভিন্ন রোগে ভূগছিল। চিকিৎসা করেও সুস্থ না হওয়ায় স্বজনরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভারতে নেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে সে উদ্যোগ বিলম্বিত হয়। এদিকে, রোগ যন্ত্রণা সইতে না পেরে সোমবার সন্ধ্যায় শিল্পী নিজ শোবার ঘরের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না বেঁধে গলায় ফাঁস নিয়ে আতœহত্যা করে। পরে স্বজনরা বুঝতে পেরে থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রাতেই তার লাশ উদ্ধার করে।
এ ব্যাপারে বড়াইগ্রাম থানার উপ-পরিদর্শক রবিউল করিম জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। স্বজনদের আবেদনের প্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই তার নিহতের লাশ দাফন করা হয়েছে।