প্রধান মেনু

ভাঙ্গুড়ায় কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলায় প্রতিবেশীর ওপর হামলা

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় সিলেট ফেরত একটি পরিবার হোম কোয়ারেন্টিন না মানায় প্রতিবেশীদের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে দশটার দিকে ভাঙ্গুড়া পৌর শহরের সওদাগরপাড়া মহল্লায় এই ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভাঙ্গুড়া পৌর শহরের সওদাগরপাড়া মহল্লার বাসিন্দা শহীদুল তার দুই সন্তান হারুন ও হিরনকে নিয়ে বছরের বেশিরভাগ সময় দেশের বিভিন্ন স্থানে মনোহারী সামগ্রী বিক্রি করতে যান। সবশেষ গত মার্চ মাসে তারা ব্যবসার উদ্দেশ্যে সিলেটে যায়। কিন্তু করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতির কারণে যানবাহন বন্ধ হয়ে গেলে তারা আর ভাঙ্গুড়ায় ফিরতে পারেনি। এ অবস্থায় গত তিন মাস ধরে তারা সিলেটে অবস্থান করে। এক পর্যায়ে ২ দিন আগে শহিদুল ও তার দুই ছেলে ভাঙ্গুড়ায় ফিরে আসে। এতে প্রতিবেশীরা তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলেন। কিন্তু শহিদুল ও তার দুই ছেলে হোম কোয়ারেন্টিন না মেনে ব্যবসার উদ্দেশ্যে বাইরে যাতায়াত শুরু করেন। এ নিয়ে প্রতিবেশী হাবিবুর রহমান সহ কয়েকজন তাদেরকে বাইরে বের হতে নিষেধ করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শহীদুল ও তার ছেলেরা বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে দশটার দিকে প্রতিবেশী হাবিবুর রহমানের পরিবারের উপর লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়। এসময় হাবিবুর রহমানের পরিবারের সদস্যরাও লাঠিসোটা নিয়ে প্রতিরোধের চেষ্টা করলে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। খবর পেয়ে ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশ সদস্যরা হাজির হলে শহিদুলের পরিবারের সদস্যরা পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ হাবিবুরের ছেলে ইমরান ও ভাতিজা মোহাম্মদী নামে দুই যুবককে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। কিন্তুু তারা নির্দোষ হওয়ায় পরে ছেড়ে দেওয়া হয়। এদিকে এ ঘটনায় উভয়পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়। আহতদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়।
ভাঙ্গুড়া থানার ডিউটি অফিসার এএসআই মুকিম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সংঘর্ষের সময় পুলিশ উপস্থিত হয়েে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। এছাড়া সংঘর্ষ এড়াতে ওই এলাকায় পুলিশের নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।