প্রধান মেনু

ভাঙ্গুড়ায় গৃহবধুকে হত্যা মামলার আসামি শশুর আটক

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় তৃষা খাতুন (২৩) নামে এক গৃহবধৃুকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় শ্বশুর শহিদুল ইসলামকে আটক করেছে ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশ। গত শনিবার (২৪ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের চর-ভাঙ্গুড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় রবিবার তৃষা’র বাবা কোরবান আলী জামাই ও শ্বশুরসহ চার ব্যাক্তিকে আসামী করে ভাঙ্গুড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন, মামলা নং ৬।

রবিবার বিকেলে ওই এলাকা থেকে শ্বশুরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তৃষা’র বাবা উপজেলার পার-ভাঙ্গুড়া গ্রামের কোরবান আলী জানান, জামাই আতাহার আলী শনিবার তুচ্ছ কারণে তার মেয়ের মুখ মন্ডল এবং কানের উপর লাঠি দিয়ে আঘাত করলে সে জ্ঞান হারায়। এ সময় তার নাক-মুখ দিয়ে ফ্যানা উঠতে থাকে। অবস্থা বেগতিক দেখে জামাই তৃষা’র মুখে বিষ ঢেলে দেয়। পরে আত্নহত্যা করেছে বলে প্রচার করে।

তিনি আরো জানান, তার শ্বশুর-শ্বাশুড়ি তৃষাকে অচেতন অবস্থায় ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। তৃষা’র শ্বশুর শহিদুল ইসলাম অবশ্য বলেন, তৃষা’র সঙ্গে কারো মোবাইল ফোনালাপ নিয়ে তারা স্বামী-স্ত্রী শনিবার সকালে গন্ডগোল করে। এতে অভিমানে পুত্রবধু বিষ পান করে।

ভাঙ্গুড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মাসুদ রানা ঘটনার সত্যতা ও একজন আটকের কথা স্বীকার করে বলেন, প্রধান আসামী আতাহার আলীসহ মামলার অপর তিন আসামী পলাতক রয়েছে। এদিকে ময়না তদন্ত শেষে দাফনের জন্য রবিবার তৃষা’র লাশ বাবার গ্রাম পার-ভাঙ্গুড়া নেওয়া হলে শোকের ছায়া নেমে আসে।