প্রধান মেনু

ভাষা সংগ্রামী সাইফুল ইসলামের কনিষ্ঠ পুত্র ও পাবনা জেলা জাসদের সভাপতি আমিরুল ইসলাম রাঙার জামাতা আনন্দ আসাদের মৃত্যু

বৃহত্তর পাবনার কৃতি সন্তান বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, ভাষা সৈনিক, গণতন্ত্রী পার্টির ভাইস প্রেসিডেন্ট, প্রাবন্ধিক, লেখক, এবং ১৯৭১ সনে মজলুম জননেতা মওলানা ভাসানীর ভারতে প্রবাসকালীন সময়ে বিশেষ এইড এবং প্রাইভেট সেক্রেটারী প্রয়াত সাইফুল ইসলামের ছোট ছেলে ও পাবনা জেলা জাসদের সভাপতি আমিরুল ইসলাম রাঙার জামাতা আনন্দ আসাদ মারা গেছেন। ইন্নানিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাইহি রাজেউন। শুক্রবার বিকেলে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে উত্তরায় নিজ বাসভবনে তিনি ইন্তেকাল করেন। আনন্দ ১৯ ব্যাচ জাবি নৃবিজ্ঞানের ছাত্র। মৃত্যুকালে সে মা, স্ত্রী, দুই শিশু কন্যা, ভাই, ভাতৃবধু, এক ভাতিজা এবং এক ভাতিজি রেখে গেছেন।

আনন্দ গ্রামীণ ফোনসহ দেশের বিভিন্ন টেলিকম কোম্পানিতে সুনামের সাথে দীর্ঘদিন কাজ করেছেন। সর্বশেষ তিনি বাংলালিংকে কর্মরত ছিলেন।

আনন্দ মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের যুগ্মসচিব সাবিরুল ইসলাম বিপ্লবের খালাতো ভাই।

আনন্দ আসাদের মৃত্যুতে গভীর গভীর শোক প্রকাশ করে মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রবিউল ইসলাম রবি, পাবনা প্রেসক্লাব সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমান, সম্পাদক সৈকত আফরোজ আসাদ, সহ সম্পাদক তপু আহমেদ, গনতন্ত্রী পার্টির পাবনা জেলা শাখার সম্পাদক সুলতান আহমদ বুড়ো, পাবনা প্রতিদিন সম্পাদক ও মরহুমের সাবেক সহকর্মী রিজভী রেজওয়ানুল ইসলাম শুভ।
শনিবার সকালে উত্তরায় তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

মরহুমের মৃত্যুতে পাবনা সংবাদ পরিবার শোক প্রকাশ করছি এবং আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি। শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।
সকলেই তার জন্য দোআ করবেন তিঁনি যেনো জান্নাত বাসী হন।।