প্রধান মেনু

মৌলভীবাজারে বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন‘র অবস্থান কর্মসূচি

বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন (গভ. রেজি. এস-১০২৮/৯৮) এর কেন্দ্রঘোষিত দেশব্যাপী শিক্ষকদের অবস্থান কর্মসূচি পালিত হয়েছে। কিন্ডারগার্টেন স্কুলগুলোকে প্রণোদনা ও সহজ শর্তে ঋণের দাবিতে বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন এর মৌলভীবাজার জেলা শাখার আয়োজনে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত অবস্থান কর্মসূচি অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন- বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন এর মৌলভীবাজার জেলা সভাপতি প্রিন্সিপাল এহসান বিন মুজাহির। সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- সংগঠনের জেলা শাখার উপদেষ্টা ও বড়লেখা ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এর প্রধান শিক্ষক তপন চৌধুরী, রাজনগর শাহ পরান (রাহ.) কিন্ডারগার্টেন স্কুল এর প্রধান শিক্ষক ও সংগঠনের রাজনগর উপজেলা শাখার প্রধান উপদেষ্টা মোঃ শামছুদ্দিন সমছু, সংগঠনের মৌলভীবাজার জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান, সংগঠনের রাজনগর উপজেলা সভাপতি মোঃ ফখরুল ইসলাম, শ্রীমঙ্গল উপজেলা সভাপতি মোঃ আলী আহমদ, মৌলভীবাজার সদর উপজেলার সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান রাহাত। ঘন্টাব্যাপী শিক্ষকদের অবস্থান কর্মসূচিতে আরো উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন এর রাজনগর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক এইচ এম হারুনুর রাশীদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মুস্তফা বকস, শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি আলী হোসেন, সাধারণ সম্পাদক এম এ নাঈম, শিক্ষা সম্পাদক আশিকুর রহমান চৌধুরী, মৌলভীবাজার গোলশান একাডেমির সহকারী শিক্ষক আতাউর রহমান রাহাত, দ্যা রেডিয়েন্ট স্কুল এর প্রধান সম্পাদক মিজানুর রহমান, পাতাঁকুড়ি স্কুল এর প্রধান শিক্ষক মোঃ জিলাল মিয়া, দ্যা স্টার্য এর সহকারী শিক্ষক মোঃ আব্দুল্লাহ, কমরুন নেছা একাডেমির সহকারী শিক্ষক নেপাল চন্দ্র রায় নিলয়, শেখ রাসেল স্মৃতি কেজি স্কুল এর মেহেদি হাসান মিশু, দ্যা এক্সপার্ট কিন্ডারগার্টেন স্কুল এর সহকারী শিক্ষক তায়েব ইসলাম, মোঃ সুমন মিয়া, চাইল্ড কেয়ার এডুকেশন সেন্টার এর সহকারী শিক্ষক তুষার চক্রবর্ত্তি, তৈয়বুল ইসলাম, মডেল একাডেমি অ্যান্ড বিএম কলেজের সহকারী শিক্ষক মীর হোসেন সাগর, দীপশিখা প্রি ক্যাডেট অ্যান্ড হাই স্কুল এর সহকারী শিক্ষক রঞ্জিতত কুমার সিংহ। এছাড়াও কর্মসূচিতে জেলার ৭টি উপজেলার বিভিন্ন কিন্ডারগার্টেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক, কেজি স্কুল উদ্যোক্তা ও পরিচালকরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে ১ ঘন্টাব্যাপী অবস্থান কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন। ঘন্টাব্যাপী অবস্থান কর্মসূচিতে সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন এর মৌলভীবাজার জেলা সভাপতি ও শ্রীমঙ্গল আইডিয়াল স্কুলের প্রিন্সিপাল এহসান বিন মুজাহির বলেন- প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ ভাইরাসের কারণে সরকারের নির্দেশে গত চার মাস (মার্চ, এপ্রিল, মে, জুন) ধরে দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে আমরা কিন্ডারগার্টেন স্কুলগুলো বন্ধ রেখেছি। ফলে প্রতিষ্ঠানের আয়ের একমাত্র উৎস ছাত্র-ছাত্রীদের মাসিক বেতন বন্ধ। তাই শিক্ষক, কর্মচারির বেতন, স্কুল ভাড়া এবং গ্যাস, বিদ্যুত বিলও আমরা পরিশোধ করতে পারছিনা। করোনার দুর্যোগের সময় শিক্ষক, কর্মচারিরা মাসের পর মাস বেতন না পেয়ে পরিবার নিয়ে খুবই মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। স্কুল বেতন ও কোচিং, টিউশনি নির্ভর শিক্ষকরা আজ অর্থকষ্টে দিশেহারা। অনেকেই শিক্ষকতার মতো মহান পেশা ছেড়ে বিকল্প পেশায় যুক্ত হচ্ছেন, আবার কেউ কেউ স্কুল বন্ধ ও প্রতিষ্ঠানের আসবাবপত্র বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আজ এই সময়ে সম্মানিত শিক্ষকরা নিরাপদে ঘরেই থাকার কথা ছিল! কিন্তু আমরা দুঃখ ভারাক্রান্ত হৃদয় নিয়ে শিক্ষকদের দুঃখ-দুর্দশা লাঘবে ন্যায্য দাবি আর্থিক প্রণোদনা আদায়ের লক্ষে রাস্তায় দাঁড়াতে বাধ্য হয়েছি। ইতোমধ্যে আমরা মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক, বিভিন্ন উপজেলায় নির্বাহী অফিসারদের কাছে স্মারকলিপি ও আর্থিক সহায়দা প্রদানের জন্য আবেদন করেছি, মৌলভীবাজার জেলার অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক (রাজস্ব ও শিক্ষা) এর হাতে মৌলভীবাজার জেলার সকল কিন্ডারগাটেন স্কুলের সংখ্যা ও শিক্ষক তালিকাও জমা দিয়েছি। এখন পর্যন্ত আমাদের জন্য কোনো বরাদ্দ আসেনি। মৌলভীবাজার জেলায় ৭টি উপজেলায় ৪১৪ টি কিন্ডারগার্টেন স্কুলে সর্বমোট শিক্ষক কর্মচারির সংখ্যা ৫,১৯০ জন। শুধু শিক্ষক-শিক্ষিকা ৪,৬৬৫ জন এবং কর্মচারি সংখ্যা ৫২৫ জন। আজকের এ অবস্থান কর্মসূচি থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে ‘নন এমপিওভূক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মত কিন্ডারগার্টেন স্কুলের শিক্ষক, কর্মচারীদেরও আর্থিক বিশেষ প্রণোদনা এবং সহজ শর্তে ঋণ প্রদান করে শিক্ষক এবং কিন্ডারগার্টেন স্কুলগুলোকে রক্ষায় তাঁর সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছি। কিন্ডারগার্টেন স্কুল, পরিচালক, উদ্যোক্তা এবং শিক্ষক-কর্মচারির একটিই দাবি করোনা ভাইরাসের দুর্যোগ কাটিয়ে উঠতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে বিশেষ প্রণোদনা। ঘন্টাব্যাপী অবস্থান কর্মসূচিতে ১০ টি দাবি পেশ করে সংগঠনটি। দাবিগুলো হলো:- শিক্ষা উদ্যোক্তাদের জন্য প্রণোদনা/সহজ শর্তে ঋণ, করোনা সংকটে দুর্ভোগ পড়া কিন্ডারগার্টেন স্কুল শিক্ষকদের জন্য বিশেষ অনুদান, করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া কিন্ডারগার্টেন স্কুল শিক্ষক পরিবারকে বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা, ৬ লাখ শিক্ষিত বেকার মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টিকারী কিন্ডারগাটের্ন স্কুলকে টিকিয়ে রাখতে সরকারের সহযোগিতা, দেশের ১ কোটি শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যত ধ্বংসের মুখে তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী স্কুলগুলোকে বাঁচান, মানুষ গড়ার কারিগর শিক্ষকদের অর্থ কষ্ট লাঘবে সরকারি প্রণোদনা দিন, শিক্ষা ক্ষেত্রে অপরিসীম অবদান রাখা কেজি স্কুলকে সহজ প্রক্রিয়ায় নিবন্ধন, কিন্ডারগার্টেন স্কুলের সমস্যাকে জাতীয় সমস্যা হিসেবে বিবেচনা করা, প্রাথমিক শিক্ষায় অতুলনীয় অবদানের জন্য কিন্ডারগার্টেনকে গুরুত্ব প্রদান করা ও যেকোন আপতকালীন সংকট মোকাবেলায় সহযোগীতার দাবী তুলে ধরেন।