প্রধান মেনু

লাস্টিক সার্জারি করে বুড়ি হয়ে গেলেন শ্রুতি হাসান

দক্ষিণ ভারতের সুপারস্টার কমল হাসানের মেয়ে শ্রুতি হাসান সিনেমায় এসেছেন কয়েকবছর আগে। তামিল-তেলেগু ছাড়িয়ে বলিউডের হিন্দি ভাষার সিনেমায় তিনি অভিনয় করছেন। লাবন্যময় এই অভিনেত্রী নিজের সৌন্দর্য্য আরও বাড়াতে প্লাস্টিক সার্জারির মাধ্যমে পাল্টেছেন নাক-ঠোঁটের গড়ন।

প্লাস্টিক সার্জারি করার পর শ্রুতি হাসান তার কয়েকটি ছবি পোস্ট করেছিলেন সোশাল মিডিয়ায়। এরপরই ঘটে বিপত্তি। তার ছবি নিয়ে শুরু হয় তুমুল আলোচনা। অনেকেই লিখেছেন, প্লাস্টিক সার্জারি করার পর শ্রুতি হারিয়েছেন তার স্বাভাবিক সৌন্দর্য্য। তাকে এখন দেখতে বুড়ি বুড়ি লাগছে, রোগা লাগছে। আগে তিনি সুন্দরী ছিলেন, এখন হয়েছেন বুড়ি।
সোশ্যালের এসব মন্তব্যে নিজেকে সামলে রাখতে পারেননি শ্রুতি। চটে গিয়ে পাল্টা জবাবে বলেছেন, আমি ঠোঁট-নাকে প্লাস্টিক সার্জারি করেছি। তা নিয়ে একটুও লজ্জিত নই! আমার জীবন। আমার শরীর। আমার চোখ-মুখ-নাক। সেটা বদলাব না যা ছিল তাই-ই থাকবে ঠিক করব আমি। অন্যেরা বলার কে?

নিজের নতুন দুটি ছবি টুইটার লিখেছেন, আমার শরীর নিয়ে কাটাছেঁড়া বা যা খুশি করার অধিকার আমার আছে। আমাকে বুড়ির মতো লাগছে নাকি কিশোরীর মতো লাগছে, প্লাষ্টিক সার্জারি করাটা ঠিক হয়নি- এসব মন্তব্য করা অধিকার আমি কাউকে দেইনি। আমি কী করব না করব সেটা অন্যে ঠিক করে দেবে! কেন?