প্রধান মেনু

রাজশাহীতে ৮দিন জীবন-মৃত্যুর যুদ্ধে হেরে

সাঁথিয়ায় হাতুড়ী পিটিয়ে আহত করা সেই যুবক মারা গেলেন

সাঁথিয়া প্রতিনিধিঃ
পাবনার সাঁথিয়ায় সন্ত্রাসীদের হাতুড়ীর আঘাতে গুরুতর আহত যুবক মানিক (৩৫) ৮দিন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে যুদ্ধে হেরে শুক্রবাব রাতে রাজশাহীতে মারা গেছেন । মানিক উপজেলার আতাইকুলা থানাধীন ভুলবাড়িয়া ইউনিয়নের তেবাড়ীয়া গ্রামের আঃ মান্নানের ছেলে।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, এলাকার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গত গত ২৭ ডিসেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যায় তেবাড়িয়া বাজারে পুর্ব শত্র“তার জের ধরে পরিকল্পিতভাবে আতাইকুলা থানার ভুলবাড়িয়া ইউনিয়নের তেবাড়ীয়া গ্রামের আঃ মান্নানের ছেলে মানিক (৩৫)কে হাতুড়ী ও লোহার রড দিয়ে এলোপাথারী পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। খবর পেয়ে মানিকের লোকজন উদ্ধার করে প্রথমে পাবনা মেডিক্যালে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে রাজশাহীতে একটি বেসরকারী একটি ক্লিনিকে আইসিইউতে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হয়। আইসিইউতে ৮দিন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে চিৎিসাধীন থাকা অবস্থায় শুক্রবার রাতে মানিক মারা যান। ঘটনার দিন মানিকের ভাই আঃ মালেক বাদী হয়ে আতাইকুলা থানায় মন্টু, আয়ুব, আসলামসহ ২৩ জন নামীয় ও অজ্ঞাত আরো ১০/১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ এ পর্যন্ত ভুলবাড়িয়া ইউনিয়নের বরইবাড়িয়া গ্রামের মোফাজ বিশ্বাসের ছেলে মমিন বিশ্বাস ও বক্কার খাঁর ছেলে বাসেদ খাঁ নামে দু’জনকে আটক করেছে।
স্থানীয়রা আরো জানান এর আগে একই বাজারে প্রকাশ্য দিবালোকে গুলি করে গফুর মেলেটারীসহ দু’জনকে হত্যা মামলার আসামী হিসেবে এই মামলা আসামীদের নাম রয়েছে। তেবাড়িয়া বাজারের কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, স্থানীয় আধিপত্য বিস্তার ও দখলকে কেন্দ্র করে এই হত্যাকান্ডগুলো ঘটে আসছে। আতাইকুলা থানার ওসি তদন্ত কামরুল ইসলাম মানিকের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।