প্রধান মেনু

সাকিব ছাড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ তাইজুলের সামনে

সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ ক্রিকেটের যত অর্জন আছে তা সব সাকিব আল হাসানকে কেন্দ্র করেই। বাংলাদেশ ক্রিকেটের পোস্টার বয় সাকিব আল হাসান প্রায় সব রেকর্ডের মালিক। এবার সাকিবকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ আরেক বাঁহাতি তাইজুলের সামনে। বাংলাদেশের হয়ে দ্রুততম ১০০ উইকেটের মালিক হতে পারেন তাইজুল ইসলাম।

রেকর্ডটি গড়তে তাইজুল ইসলামের লাগবে আর ১ উইকেট। রেকর্ডটি তিনি করে ফেলতে পারেন কদিন পর আফগানিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টেই। টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে দ্রুততম ১০০ উইকেট পেতে তাইজুলের লাগবে মাত্র ১ উইকেট। ২৪ টেস্টে তাঁর উইকেট সংখ্যা ৯৯।

বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে টেস্টে সবচেয়ে দ্রুততম ১০০ উইকেট রেকর্ড এখন সাকিব আল হাসানের অধিকারে। বাঁহাতি অলরাউন্ডার রেকর্ডটা গড়েছিলেন ২৮ টেস্টে। তাইজুল সেটি ভেঙে দিতে পারেন ২৫ টেস্ট খেলে। অবশ্য বাঁহাতি স্পিনার এ রেকর্ড নিয়ে ভাবছেন না বলেই জানালেন, ‘এসব মাথায় থাকে, আবার থাকেও না। যখন মাঠে নামি এক উইকেটের জন্য নামি না। নামলে ৫-৬ উইকেট পেতেই নামি। এক উইকেট নিয়ে চিন্তা করছি না। কপালে থাকলে হবে। আমি চিন্তা করছি ভালো বোলিং করে দলকে কীভাবে সহায়তা করা যায়।’

সাকিবের রেকর্ড ভেঙে দিতে পারলে তাইজুলের মনে নিশ্চয়ই উচ্ছ্বাসের ঢেউ উঠবে। সেটা সাকিব বাকি সবার জন্য একটা অনুপ্রেরণার নাম বলেই। ছুটি শেষে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার যে দলে ফিরছেন, সেটি জেনে তাই বেশি ভালো লাগছে তাইজুলের, ‘সাকিব ভাই না থাকলে কঠিন হয়ে যায়। তিনি এত অভিজ্ঞ, বিশ্বের এক নম্বর অলরাউন্ডার। তিনি যখন বোলিং করেন, ব্যাটসম্যানরা তাঁকে খুব সাবধানে খেলে। আমরা যারা অন্য প্রান্তে বোলিং করি তাদের কাজটা একটু সহজ হয়ে যায়। সাকিব ভাই দলে যোগ দিচ্ছেন। বাংলাদেশ দলের জন্য এটা খুশির সংবাদ। আমার লক্ষ্য থাকবে জুটি গড়ে সাকিব ভাইকে সহায়তা করে যতটা ভালো করা যায়।’

সাকিবের সঙ্গে জুটি গড়তে চাইছেন তাইজুল—তার আগে আফগানিস্তানের বিপক্ষে কেমন উইকেট খেলবে বাংলাদেশ, সেটি তো আগে নিশ্চিত হতে হবে। স্পিন-সহায়ক উইকেট খেললে হিতে বিপরীত হতে পারে, সেটি কি আর অজানা বাঁহাতি স্পিনারের? আফগানদের যে দুর্দান্ত স্পিনার রয়েছে। তাইজুল অবশ্য দাবি করলেন কেমন উইকেট হবে এখনো তাঁদের জানানো হয়নি, ‘আমাদের এখনো জানানো হয়নি। তবে যে উইকেট দেওয়া হোক স্পিন কিংবা ন্যাড়া, ভালো বোলিং তো করতে হবে। সে অনুযায়ী আমাদের তৈরি হতে হবে।’

আফগানিস্তানে যত ভালো মানের স্পিনারই থাকুক, বাংলাদেশ যে সিরিজ জেতার লক্ষ্যেই নামবে, সেটি জানিয়ে রাখলেন তাইজুল, ‘আফগানিস্তানকে এখন আর ছোট দল বলতে পারবেন না। এ টেস্টে যারা ভালো খেলবে তারা জিতবে। আমরা যেহেতু দেশের মাঠে খেলব চেষ্টা করব সিরিজ জেতার।’

আফগানিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্ট শুরু ৫ সেপ্টেম্বর।