প্রধান মেনু

সামান্য বৃষ্টিতেই সড়কে পানি চাটমোহর পৌরসভা সড়কের বেহাল দশা জনদূর্ভোগ চরমে

মোঃ নূরুল ইসলাম, চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি ঃ

পাবনার চাটমোহর পৌরসভার রাস্তাগুলো দীর্ঘদিন সংস্কার হয়নি। এ কারণে রাস্তাগুলোর অধিকাংশ স্থানে খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। চলাচলের একেবারেই অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। একটু বৃষ্টি হলেই পানি জমে ভাঙ্গা গর্তে সৃষ্টি হয়ে পুকুরের পরিনত হয়েছে। ফলে ছোট বড় যানবাহন চলাচলের একেবারেই চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। আবার অনেকের অভিযোগ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এই সড়কগুলো দেখেও না দেখার ভান করছে। ১ম শ্রেণীর পৌরসভা চাটমোহর। এ রাস্তাগুলো দিয়ে বিভিন্ন গন্তব্যে যাতায়াত করতে হয় মানুষের।

রাস্তা ঝাড়–দাররা রাস্তার মাঝখানদিয়ে ঝাড়– দিয়ে দুপাশে ময়লা আবরজনা ফেলে রেখে যায়। এমনকি কোথাও কোথাও খড়, লাড়কী, গোবর দেওয়া থাকলেও তা রেখেই রাস্তা ঝাড়ু দিয়ে চলে যায়। ঝাড়–দার সর্দার ও সুপারফাইজারকে বলেও কোন কাজ হয়নি। এমনো অভিযোগ করেছে পৌরবাসী। দেখা গেছে পৌর ভবনের সাথেই উত্তর পাশে বাসাবাড়ির সামনে রাস্তার ওপর গবর ও লাকড়ী বিছানো আছে। পৌরসভার রাস্তাগুলোর অবস্থা দেখে বলার উপায় নেই যে এটা পৌরসভার রাস্তা। এমনকি পথযাত্রীরা বলাবলিও করে যে, এই একটা কি পৌরসভার রাস্তা, না অন্য কিছু।

সরজমিনে দেখা গেছে, পৌরসভার থানা মোড় থেকে বাসস্ট্রান্ডসহ বিভিন্ন সড়কগুলো দীর্ঘ দিন ধরে ভেঙ্গে গর্তে সৃষ্টি হয়েছে এবং পৌরের প্রতিটি ওয়ার্ডের সকল রাস্তাগুলোই খানাখন্দে ভরপুর হয়ে আছে। ফলে যানবাহন ও জনদূর্ভোগ চরম আকার ধারন করেছে। বিশেষ করে সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি জমে যায়। তবে যাত্রীরা বলছে এই ভাঙ্গার কারণে অনেকেই দূর্ভোগ স্বীকার হতে হচ্ছে। আবার অনেকেই দূর্ঘটার হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য কষ্ট করে ভয়ে গাড়ি থেকে নেমে পাঁয়ে হেঁটে পার হচ্ছে।

তবে এলাকাবাসী ও অভিভাবকেরা বলছেন, এই ভাঙ্গার কারেণ শিক্ষার্থীরা সময় মত স্কুল কলেজ ও মাদরাসায় যাতায়াত করতে পারছে না। চাকুরীজীবিসহহ নানান পেশার মানুষ পৌরসভার সড়ক দিয়ে চলাচল করতে হিমশিম খাচ্ছে। এই সড়কগুলো সংস্কার করার নাম গন্ধ নেই বলইে চলে।

পৌরসভার স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বললে তাঁরা জানান, দীর্ঘদিন সংস্কার না হওয়ায় রাস্তাগুলোর অধিকাংশ স্থানে কার্পেটিং উঠে গিয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সরোজমিনে ঘুরে দেখা গেছে নতুন বাজার খেয়াঘাট মোড়, হাড়ান মোড়, ছোটশালিখা, বালুচর, কাজি পাড়া, আফ্রাত পাড়া, বাসস্ট্রান্ড, থানার সামনে, হাসপাতালের সামনে এবং দোলংসহ বিভিন্ন রাস্তাগুলো চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে।

বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করছেন পৌরসভার সর্বস্তরের সাধারণ মানুষ।

এ ব্যাপারে পৌর মেয়র মির্জা রেজাউল করিম দুলাল বলেন, চলতি অর্থবছরে সড়কগুলোর সংস্কারের জন্য একটি প্রকল্প অনুমোদন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। প্রকল্প অনুমোদন হলে ঠিকাদার বাছাই করে সড়কের সংস্কার কাজ শুরু করা হবে। তবে ইতিমধ্যে কিছু সড়কের কাজ শুরু হয়েছে।