প্রধান মেনু

সুজানগরে গাজনার বিলে ছেঁকে মারা হচ্ছে মা ও পোনা মাছ

সুজানগর (পাবনা) প্রতিনিধি ঃ পাবনার সুজানগরের ঐতিহ্যবাহী গাজনার বিলে নিষিদ্ধ বেড় জাল দিয়ে ছেঁকে মারা হচ্ছে মা ও পোনা মাছ। এতে ঐতিহ্যবাহী এই বিল শুষ্ক মৌসুমে মাছ শূন্য হয়ে পড়ার আশঙ্কা করছেন এলাকার সচেতন মহল। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গাজনার বিল এলাকার শারীরভিটা, বস্তাল, স্বাগতা, হাটখালী, বোনকোলা, দুলাই, উলাট, খয়রান, দুর্গাপুর এবং বদনপুরসহ বিভিন্ন গ্রামের প্রায় দুই হাজার মৎস্যজীবী রয়েছে। এসব মৎস্যজীবীরা সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রত্যেক বছর বর্ষার শুরুতেই গাজনার বিল থেকে নিষিদ্ধ বেড় এবং কারেন্ট জাল দিয়ে রুই, কাতলা, টেংরা, বাইম, কৈ এবং পুঁটি মাছসহ বিভিন্ন প্রজাতির মা ও পোনা মাছ শিকার করেন। বিশেষ করে বেড় জাল দিয়ে মা ও পোনা মাছ ছেঁকে মারেন বলে বিলপাড়ের উলাট গ্রামের ফজলুল হক মাস্টার জানান। উপজেলার হাটখালী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আজাহার আলী শেখ বলেন প্রত্যেক বছর বর্ষা মৌসুমে বিলে সরকারিভাবে ৩/৪লাখ টাকার পোনা মাছ অবমুক্ত করা হয়। তাছাড়া প্রাকৃতিকভাবেও বিলে প্রচুর পরিমাণে মাছ হয়। কিন্তু উপজেলা মৎস্য বিভাগের উদাসীনতার সুযোগে ওই সকল মৎস্যজীবীরা বিলে বর্ষার নতুন পানি আসার পর থেকেই বেড় এবং কারেন্ট জাল দিয়ে অবাধে ওই সকল মাছ নিধন করেন। বিলপাড়ের রানীনগর গ্রামের মাসুদ রানা বলেন মৎস্যজীবীরা পেট ভর্তি ডিমওয়ালা মা ও পোনা মাছ শিকার করে প্রকাশ্যে স্থানীয় হাট-বাজারে বিক্রি করলেও দেখার কেউ নেই। ফলে তারা বেড় জাল দিয়ে ওই মাছ একদম ছেঁকে মারছেন। এতে শুষ্ক মৌসুমে বিল অনেকটা মাছ শূন্য হয়ে পড়তে পারে বলে তিনি ধারণা করছেন। এ ব্যাপারে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আব্দুল হালিম বলেন চলতি প্রজনন মৌসুমে পদ্মায় ইলিশ শিকার বন্ধে অভিযান পরিচালনা করায় বিলের দিকে নজর দিতে পারছিনা। তবে শিগগিরই ওই সকল মৎস্যজীবীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পানার সুজানগরে গাজনার বিলে বেড় জাল দিয়ে ছেঁকে মারা হচ্ছে মা ও পোনা মাছ