প্রধান মেনু

সেরেনার কাছে আর কতো হারবেন শারাপোভা ?

বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ভারতকে কখনোই হারাতে পারেনি পাকিস্তান। ১৯৯২ বিশ্বকাপ থেকে শুরু করে ২০১৯ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ পর্যন্ত একবারের জন্যও পাকিস্তানের কাছে হারেনি ভারত। এ তো গেলো ক্রিকেটের কথা। টেনিসেও এমন রেকর্ড হতে যাচ্ছে। গ্লামার গার্ল মারিয়া শারাপোভা আর সেরেনা উইলিয়ামসের লড়াইটা ছিলো ঠিক এমনই কিছু। কিন্তু এই লড়াইটা এখন এতটাই পানসে হয়ে গেছে যে, এই নিয়ে আর কোনো কথাও হয় না টেনিস পাড়ায়।

শেষবার যখন শারাপোভা জিতেছিলেন সেরেনার বিরুদ্ধে তখনও রাফায়েল নাদাল একটিও গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিততে পারেননি। সেই নাদালের নামের পাশে এখন ১৮টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম। কিন্তু শারাপোভা পারেননি সেরেনাকে হারাতে।

অথচ টেনিস কোর্টের এক সময়ে পরম আরাধ্য দ্বৈরথ ‘সেরেনা-শারাপোভা’ একপেশে হতে হতে একদম উত্তেজনাহীন হয়ে গিয়েছে। গতকাল ইউএস ওপেনের প্রথম রাউন্ডে মারিয়া শারাপোভাকে ৬-১, ৬-১ সেটে সরাসরি হারিয়ে দিয়েছেন সেরেনা উইলিয়ামস। শারাপোভার বিপক্ষে এই নিয়ে টানা উনিশবার জিতলেন তিনি। আর এই জয় নিয়ে রাশিয়ান সুন্দরীর সঙ্গে মুখোমুখি লড়াইয়ে ২০-২ ব্যবধানে এগিয়ে গেলেন সেরেনা। মাত্র ৫৯ মিনিট স্থায়ী এই লড়াইয়ে সেরেনার সামনে একদম প্রতিরোধ গড়তে পারেননি শারাপোভা।

অপরদিকে পুরুষদের টেনিসে সেরেনার মতো ইউএস ওপেনের প্রথম রাউন্ডে জয় তুলে নিয়েছেন শীর্ষ বাছাই নোভাক জোকোভিচ। প্রথম রাউন্ডে স্পেনের রবার্তো কারবায়েস বায়নাকে ৬-৪, ৬-১, ৬-৪ গেমে হারিয়েছেন এই সার্বিয়ান তারকা। দ্বিতীয় রাউন্ডে ১৬টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী এই তারকা মুখোমুখি হবেন আর্জেন্টিনার হুয়ান ইগনাসিওর।

এদিকে অঘটনের হাত থেকে বেঁচে গিয়েছেন কিংবদন্তী টেনিস তারকা রজার ফেদেরার। হারতে হারতে জিতেছেন ৩৮ বছর বয়সী সুইস তারকা রজার ফেদেরার। সর্বশেষ সেই ২০০৩ সালের ফ্রেঞ্চ ওপেনে প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছিলেন ফেদেরার। ইউএস ওপেনের প্রথম রাউন্ডে প্রথম গেম জিতে সেই ভয় ধরিয়ে দিয়েছিলেন ভারতের সুমিত নাগাল। ২২ বছর বয়সী দিল্লির এ তরুণ ফেদেরারের বিপক্ষে প্রথম গেম জেতেন ৬-৪-এ। তবে এরপর আর অঘটন ঘটতে দেননি ফেদেরার। ৪-৬, ৬-১, ৬-২, ৬-৪ গেমে জিতে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠে যান তিনি। দ্বিতীয় রাউন্ডে বসনিয়া-হার্জেগোভিনার দামির জুমহুরের বিপক্ষে লড়বেন তিনি।