প্রধান মেনু

স্ত্রীকে হত্যার পর পালিয়ে বেড়ান ডাবলু

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে ডাবলু মিয়া (৩৫) নামের এক পলাতক আসামিকে। স্ত্রীকে হত্যার পর তিনি দু’মাস ধরে পলাতক ছিলেন। মঙ্গলবার বিকালে ভাঙ্গুড়া পৌর শহরের কালীবাড়ি মহল্লা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। স্ত্রী হত্যার দায়ে তার বিরুদ্ধে গাজীপুরের জয়দেবপুর থানায় মামলা রয়েছে।

সূত্র জানায়, ডাবলু মিয়া ভাঙ্গুড়া পৌর শহরের কালীবাড়ি গুচ্ছগ্রামের আক্কাস আলীর ছেলে। ১১ বছর আগে ডাবলু মিয়ার সাথে বিয়ে হয়েছিল পাথরঘাটা গ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের মেয়ে ফাতেমার। বিয়ের তিন বছর পর তারা গাজীপুরের জয়দেবপুর চলে যাযন। সেখানে একটি পোশাক কারখানায় কাজ নেন স্বামী-স্ত্রী। ডাবলু মাদকাসক্ত হয়ে পড়লে টাকার জন্য স্ত্রীকে মারপিট করতেন। এ বিষয় নিয়ে একাধিকবার পারিবারিক বৈঠক হয়।
গত ২৬ ফেব্রুয়ারি টাকা দিতে না চাইলে ফাতেমাকে বেদম মারপিট করেন ডাবলু। পরে তাকে বাসায় ফেলে রেখে পালিয়ে যান। একই এলাকায় বসবাস করা বড় বোন ফাতেমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেন। সেখানে চিকিৎসকরা ফাতেমাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় ফাতেমার বড় ভাই রাজিব আহমেদ বাদি হয়ে জয়দেবপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। বিভিন্নস্থানে পলাতক থাকার পর মঙ্গলবার ডাবলু ভাঙ্গুড়ার বাড়িতে ফেরেন। এরপর ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশ তাকে অনুসরন করে শহরের কালীবাড়ি এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে।