চাটমোহরে টিসিবির পন্য বিক্রি হচ্ছে না- সুবিধাবাদী ডিলাররা মালামাল না তোলায় বিপাকে দরিদ্র মানুষ

ইকবাল কবীর, চাটমোহর (পাবনা)

নিত্য প্রয়োজনীয় কতিপয় পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় চাটমোহরের নি¤œ ও মধ্যবিত্ত আয়ের মানুষেরা সংসার পরিচালনা করতে হিমশিম খাচ্ছেন। বন্ধ রয়েছে টিসিবির পণ্য বিক্রি। ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) কর্তৃক নির্ধারিত ডিলারের মাধ্যমে কিছু সংখ্যক পন্য বিক্রির খবরে নি¤œ আয়ের মানুষ কিছুটা স্বস্তির নিশ্বাস ফেললেও শেষ পর্যন্ত চাটমোহরের সুবিধাবাদী টিসিবি ডিলাররা মালামাল না তোলায় নি¤œ ও মধ্যবিত্তের সে আশায় যেন গুড়ে বালি পরেছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কিছুই জানেন না। চাটমোহরে টিসিবির কয়জন ডিলার রয়েছেন সংশ্লিষ্টরা সে সম্পর্কেও কিছু জানাতে পারেন নি।

টিসিবির পন্য না পাওয়া প্রসঙ্গে পৌর সদরের আব্দুল মালেক জানান, টিসিবির পণ্যসামগ্রী বাজার মূল্যের চেয়ে কম দামে বিক্রি হয়। চাটমোহরে টিসিবির পণ্য বিক্রি না হওয়ায় আমরা অপেক্ষাকৃত কম দামে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য পাচ্ছি না। ফলে সাধারণ নি¤œ আয়ের মানুষ আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। এ ব্যাপারে চরসেনগ্রামের দরিদ্র ভ্যানচালক সানোয়ার হোসেন জানান, অনেক জায়গায় টিসিবির পণ্য সামগ্রী বিক্রি হলেও চাটমোহরে টিসিবির পণ্য বিক্রি চোখে পরে না। রমজানের সময় কিছু কম দামে ছোলা, চিনি, সয়াবিন, ডালের মতো প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী পেলে আমরা উপকৃত হতাম।

চাটমোহর রেল বাজার এলাকার টিসিবি ডিলার আব্দুল কুদ্দুস সরকার জানান, “লাভ না হওয়ায় দীর্ঘদিন আমি টিসিবির মালামাল তুলি না। এমন কি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বারবার তাগাদা দিলেও আমার লাইসেন্স রিনিউ করিনি।

সীমিত আকারে দুএকদিন টিসিবির পণ্য বিক্রি করেছেন উপজেলার নিমাইচড়া ইউনিয়নের মির্জাপুর হাটের টিসিবি পণ্য বিক্রেতা সাগর সজীব ট্রেডার্সের সত্ত্বাধিকারী জহুরুল ইসলাম সুরুজ। তিনি জানান, বেশ কিছুদিন যাবত টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু হয়েছে। এ পর্যন্ত এক দফায় ৬০ বোতল সয়াবিন তেল, ৫শ কেজি চিনি, ৬শ কেজি ছোলা, ও ৪শ কেজি মশুর ডাল পেয়েছিলেন তিনি। মালামালের প্রচুর চাহিদা থাকলেও প্রয়োজন অনুযায়ী বরাদ্দ পাওয়া যাচ্ছে না। তিনি জানান ৫ লিটার সয়াবিন ৪২৫ টাকায়, চিনি প্রতি কেজি ৫৫ টাকায়, ছোলা প্রতি কেজি ৭০ টাকায়, মশুর ডাল প্রতি কেজি ৮০ টাকায় বিক্রি করেছেন তিনি।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে, চাটমোহর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বেগম শেহেলী লায়লা জানান টিসিবির পন্য বিক্রি, ডিলার বা এসংক্রান্ত তথ্য তার জানা নেই। এ ব্যাপারে তিনি উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের সাথে কথা বলতে বলেন।

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মামুন এ কাইয়ুম এ জানান, টিসিবির পণ্য বিক্রয় বিপনন আমাদের দপ্তরের কাজ নয়। এ ব্যাপারে আমাকে কেউ অবহিত ও করেনি।

চাটমোহরে টিসিবির পণ্য সরবরাহ বিতরণে সাধারণ মানুষ সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author