মাশরাফির বিকল্প নেই
ঈদের পর পরই হুট করে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে চলে এসেছিল ওয়ানডেতে মাশরাফি বিন মুর্তজার নেতৃত্ব। সেই অনাহূত বিতর্কে দুলে উঠেছিল বাংলাদেশের ক্রিকেট। গতকাল মঙ্গলবার অবশ্য সেই বিতর্কে জল ঢেলে দিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠে বিসিবি সভাপতি বলেছেন, মাশরাফিকে নেতৃত্ব থেকে সরানোর কথা ভাবছে না বিসিবি। অধিনায়ক হিসেবে তার বিকল্পও এখন বাংলাদেশে নেই। আর মাশরাফি যতদিন চাইবেন ততদিনই খেলতে পারবেন।
মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে গতকাল যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব আসাদুল ইসলামের সঙ্গে মতবিনিময় করেন বিসিবি সভাপতি। তারপর সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফির নেতৃত্ব নিয়ে বলতে গিয়ে নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘এগুলো নিয়ে আলাপই হয়নি। আর আলোচনা করার সুযোগই নেই। মাশরাফি এখানে কেবল একজন খেলোয়াড় হিসেবেই নয়, অধিনায়কও বটে। তার এই দায়িত্বটা সে যেভাবে সম্পন্ন করেছে বাংলাদেশে তার বিকল্প পাওয়া অসম্ভব। এই মুহূর্তে তার বিকল্প কোনো খেলোয়াড় আমাদের কাছে নেই।’
অধিনায়কের দায়িত্ব ছাড়াও দলে একজন খেলোয়াড় তথা পেস বোলার হিসেবে মাশরাফির পারফরম্যান্স দুর্দান্ত। সেটি স্মরণ করিয়ে দিয়ে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘এছাড়া পারফরম্যান্সের কথা দেখেন, তার পারফরম্যান্স কিন্তু অনেক ভালো। আমাদের মাথায় সব সময় চিন্তা আছে সাকিব চলে গেলে কি হবে , মুশফিক না থাকলে কি হবে। এই চিন্তাতো আমাদের মাথায় আছেই এবং থাকবে। এটা মানে এই নয় যে মাশরাফিকে অধিনায়কত্ব থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হবে। অভিজ্ঞদের নিয়ে ভাবছি এর মানে কখনোই এটা নয় যে তাদেরকে বাদ দেওয়ার বিষয়টি ভাবা হচ্ছে। এগুলো ওর জন্যও অস্বস্তিকর আমাদের জন্যও বটে।’
মাশরাফি নিজের চাওয়ামতো নির্বিঘ্নে খেলে যেতে পারবেন বলে উল্লেখ করেন বিসিবি সভাপতি। তিনি বলেন, ‘একটা কথা স্পষ্ট করে বলে দিচ্ছি মাশরাফি যতদিন খেলতে পারবে ততদিন ওকে বাদ দেওয়ার প্রশ্নই উঠে না। কারণ সে শুধু একজন খেলোয়াড়ই নন, তিনি একজন অধিনায়কও। ওর মতো অধিনায়ক বাংলাদেশে খুঁজে পাওয়া খুব কঠিন।’
গত এক বছরে প্রতিটি সিরিজেই মাশরাফির নেতৃত্ব, অবসর নিয়ে কথা উঠছে। যেটাকে সমর্থন করছেন না বিসিবি সভাপতিও। নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘এই ধরনের প্রশ্ন এই সময় উঠাটা উচিতই না। সামনে আমাদের অনেক খেলা আছে। তার আগে আমরা কোনো বিকল্প খেলোয়াড়ের খোঁজ না পেয়ে ?যদি এগুলো বলি তাহলে ওই খেলোয়াড়দের মানসিক অবস্থাটা কি হয়।’
জাতীয় দলের কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরুর আগে অবশ্য ধানমন্ডির বেক্সিমকো কার্যালয়ে বিসিবি সভাপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়েছিল মাশরাফির। সেখানেও ওয়ানডেতে তার খেলা নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। গতকাল তা স্পষ্ট করলেন নাজমুল হাসান পাপনও। তিনি বলেন, ‘যাই করি খেলোয়াড়দের সঙ্গে আলোচনা করেই করা হয়। আপনাদের আগে খেলোয়াড়রাই জানতে পারবে। মাশরাফির সঙ্গে এই ধরনের কথা আমার সঙ্গে কখনোই হয়নি।’
যদিও ঈদের পর আইসিসির সভা শেষে দেশে ফিরে সাংবাদিকদের বিসিবি সভাপতি বলেছিলেন, ২০১৯ বিশ্বকাপ নিয়ে বিসিবি ভাবছে তার উদাহরণ মাশরাফিকে টি-টোয়েন্টির নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া। গতকাল জানালেন, টি- টোয়েন্টি থেকে সরানো হয়েছে। তবে এটির সঙ্গে ওয়ানডের কোনো সম্পর্ক নেই।
Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author