নিজস্ব সংবাদদাতা :: নিখোঁজের একদিন পর পাবনার বেড়া উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের এক ডোবা থেকে এক গৃহবধুর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃত রোজিনা খাতুন (১৮) উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের হাফিজুলের স্ত্রী ও একই গ্রামের জালাল উদ্দিনের মেয়ে ছিল। এ ঘটনায় নিহতের শাশুরিকে আটক করেছে পুলিশ।

এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের নিজামউদ্দিনের ছেলে হাফিজুলের সাথে একই গ্রামের জালাল উদ্দিনের মেয়ে রোজিনার প্রায় ৭ মাস আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই হাফিজুল ও তার পরিবারের লোকজন যৌতুকের জন্য রোজিনার উপর শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন চালিয়ে আসছিলো। বুধবার সকালে হাফিজুলের বাড়ির পাশের ডোবায় রোজিনার মৃতদেহ ভাসতে দেখে এলাকাবাসী থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে। পুলিশ জানায়, নিহতের শরীরে আঘাতের চি‎হ্ন রয়েছে। স্থানীয়রা আরো জানান, মঙ্গলবার থেকে রোজিনা নিখোঁজ ছিল। এরপর থেকে তার স্বামী হাফিজুল ও তার বাবা নিজাম উদ্দিন পলাতক রয়েছে।

বেড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফ্ফর হোসেন জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে যৌতুকের কারণেই রোজিনাকে হত্যা করে মৃতদেহ গুম করার জন্য ডোবায় ফেলে রাখা হয়েছিল। এ ঘটনায় পুলিশ হাফিজুলের মা হাফসা খাতুনকে আটক করেছে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author