ইমাম গাযযালীতে অতিরিক্ত সেশন ফি আদায়ের অভিযোগ

রফিকুল ইসলাম সুইট : পাবনা ইমাম গাযযালী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজে সরকারি নীতিমালা উপেক্ষা করে অতিরিক্ত সেশন ফি আদায় এবং সেশন ফি পরিশোধ না করায় সরকারি বই না দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসন ও শিক্ষা বিভাগের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে অভিভাবক গণ। প্রয়োজনে আইনী পদক্ষেপ নেয়ার কথা বলেছেন তারা। অতিরিক্ত সেশন ফি আদায়ের জন্য স্কুল ত্যাগ করছে বেশ কিছু শিক্ষার্থী।
অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে- সরকারি নীতি উপেক্ষা করে স্কুল শাখায় শিক্ষার্থী প্রতি ২ হাজর ৫২০ টাকা সেশন চার্জ নিয়েছে পাবনা ইমাম গাযযালী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ কতৃপক্ষ। যেখানে অন্য প্রতিষ্ঠান গুলো সেশন ফি নিচ্ছে ২/৪ শ টাকা। সরকারের নীতি হচ্ছে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে বছরের প্রথম দিন বই দিয়ে দেয়া সে নীতি মানছে না পাবনা ইমাম গাযযালী স্কুল এন্ড কলেজ। সেশন পরিশোধ না করলে সরকারি বই শিক্ষার্থীদের দিচ্ছে না পাবনা ইমাম গাযযালী স্কুল এন্ড কলেজ কতৃপক্ষ।
এ ব্যাপারে একজন অভিভাবক বলেন- এ ব্যাপারে অধ্যক্ষকে ফোন করলে তিনি বলেন বাচ্চাদের জন্য বেশী বেশী করে টাকা খরচ করার অভ্যাস করেন। বাচ্চাদের পিছনে বেশী করে টাকা খরচ করলে আল্লাহ খুশি হবেন। শিক্ষা অফিসের কর্মকর্তাদের দ্বায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি।
আরেকজন অভিভাবক বলেন- সরকার শিক্ষার্থীদের বিনা টাকায় বই দিচ্ছে আর এখানের শিক্ষার্থীরা মনে করছে টাকা দিয়ে বই নিচ্ছে। ফলে বর্তমান সরকার সর্ম্পকে শিক্ষার্থীদের ভান্ত ধারনা জন্মাচ্ছে।
এ ব্যাপারে পাবনা ইমাম গাযযালী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ সুরাইয়া সুলতানা ২ হাজার ৫২০ টাকা সেশন ফি নেয়ার কথা স্বীকার করে বলেন এটা বেসরকারী নীতিমালাতে আছে। আমার অতীত থেকেই এ ভাবে নিয়ে আসছি। বই বিতরণ সম্পর্কে তিনি বলেন- সেশন ফি না নিয়েও বই দিয়ে থাকি।
পাবনা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. নাসির উদ্দিন বলেন- স্কুল শাখায় শিক্ষার্থী প্রতি ২ হাজর ৫২০ টাকা সেশন চার্জ নেয়ার নিয়ম নাই। অতিরিক্ত সেশন ফি নেয়া ও সেশন ফি ছাড়া বই না দেয়ার কোন অভিযোগ আমার কাছে আসে নাই। তবে এই বিষয়ে খোজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author