স্টাফ রিপোর্টারঃ পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ কাশিনাথপুর, পাবনা এর একটি পোল স্থানান্তরের জন্য ১০ লাখ টাকা লাগবে বলে দাবী করেছে সংশ্লিষ্ট অফিস । সুত্র জানায়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে মাহাতাব বিশ্বাস গ্রীণ সিটি প্রজেক্টের নিজস্ব জায়গা থেকে অন্যস্থানে পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর একটি পোল স্থানান্তরের জন্য ১১ অক্টোবর /১৭ সংশ্লিষ্ট বিদ্যুৎ অফিসে একটি লিখিত আবেদন জানান। অবেদনের পর ৩০ ডিসেম্বর পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২, কাশিনাথপুর, পাবনার এ জি এম শারমিন আক্তার স্বাক্ষরিত, ২৭.১২.৭৬৭২.৫৫৭.০৬.০০৯.১৭.৪৪৪৯ নং স্মারকে বলা হয়েছে, প্রস্তাবিত স্পটটি সমিতি ও উপদেষ্টা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক পরিদর্শন এবং যথাযথ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুমোদন লাভ করায় আগামী ৩০ জানুয়ারি/১৮ এর মধ্যে পাবনা পবিস-২ এর অনুকুলে ১০ লক্ষ ৪২ টাকা জমা দেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো। উপরোক্ত অর্থ জমা দেওয়ার পর সমিতি কর্তৃক লাইনের সংস্কার সহ পরবর্তী ব্যবস্থা গৃহীত হবে। এর সাথে ৩ টি শর্তও দেওয়া হয়েছে। শর্তগুলো হলো কোন প্রকার বাঁধা ও রাইট অফ ওয়ে থাকলে নিজ দায়িত্বে সমাধান করতে হবে। মালামাল প্রাপ্তি সাপেক্ষে স্থানান্তর করা হবে এবং বর্ণিত শর্ত ব্যতিরেকে অন্য সমস্যা উদ্ভব হলে আলোচনা সাপেক্ষে নিস্পত্তি করে লাইনের সংস্কার কার্য বাস্তবায়িত হবে। এ ব্যাপারে স্বারকে দেওয়া এজিএম ( সদস্য সেবা) শারমিন আক্তারের টেলিফোন নং -০১৭৬৯-৪০০৭১৯ এ দুপুর ২ টার দিকে বার বার ফোন করেও তাকে পাওয়া যায়নি। ভ’ক্তভোগী সুত্রে জানা জায়, পোলটি মাহাতাব বিশ্বাস গীণ সিটির নিজস্ব জায়গার উপরে অবস্থিত। তিনি প্রজেক্টের আওতায় বহুতল ভবন নির্মাণ কাজ করার উদ্দ্যেশে পোলটি স্থানান্তরের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে আবেদন করেছেন। পরবর্তীতে উক্ত চিঠিটি পেয়ে তিনি হতাশ হয়েছেন। তিনি জানান, বহুতল বভন নির্মাণ কাজে বিঘœঘটায় পবিস-২ এর বিরুদ্ধে তিনি আইনগত ব্যবস্থা নিবেন।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author