শাহজাদপুরে স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন দিবস পালিত

শাহজাদপুর প্রতিনিধি ঃ

৯ মার্চ শাহজাদপুরে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলন দিবস আনুষ্ঠিকভাবে পালিত হয়েছে। ১৯৭১ সনের এই দিনে কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শাহজাদপুরস্থ কাছারিবাড়ির ঐতিহাসিক বকুলতলায় থানা আওয়ামীলীগ আয়োজিত বিশাল এক জনসভায় স্বাধীন বাংলাদেশের মানচিত্র খচিত পতাকা উত্তোলন করেন মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক শাহজাদপুর কলেজ ছাত্র সংসদের তদানীন্তন জিএস শাহিদুজ্জামান হেলাল। মুক্তি পাগল হাজার হাজার জনতার অংশ গ্রহনে অনুষ্ঠিত এ জনসভায় সভাপতিত্ব করেছিলেন তৎকালীন এম, এন, এ (জাতীয় সংসদ সদস্য) সৈয়দ হোসেন মুনসুর (প্রয়াত)। জনসভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন তৎকালীন এম, সি, এ, (জাতীয় সংসদ সদস্য) আব্দুর রহমান (প্রয়াত) প্রফেসর শরফুদ্দিন আউয়াল (প্রয়াত) কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি গোলাম আজম সাবেক ভিপি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মির্জা আব্দুল বাকী (প্রয়াত) প্রো-ভিপি আবু আশরাফ মিয়া ছাত্রনেতা ওহিদ খান প্রমুখ। পরে মুহু মুহু করতালি ও জয় বাংলা শ্লোগানের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলন করেন শাহিদুজ্জামান হেলাল। এ উপলক্ষে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ (জাসদ) শুক্রবার দিনব্যাপি নানা কর্মসূচির আয়োজন করেছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকালে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন শহীদ শাহিদুজ্জামান হেলালের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পন র‌্যালি ও আলোচনা সভা। এছাড়া বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন দিবসটি উদযাপনে নানা কর্মসূচি গ্রহন করেছে। জানা যায় ‘৭১’র ২রা মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলন করেছিলেন তৎকালীন ডাকসু’র ভিপি আ স ম আব্দুর রব। পরবর্তীতে ৮ মার্চ বিকেলে আ স ম আব্দুর রব স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকার নমুনা ও স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র বাহক মারফত শাহজাদপুরের শাহিদুজ্জামান হেলালের কাছে পাঠান। রাতভর চলে পতাকা তৈরির কাজ। পরদিন রবীন্দ্র কাচারিবাড়ির ঐতিহাসিক বকুলতলায় হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে উত্তোলন করা হয় স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পতাকা। সেই থেকে শাহজাদপুরে এই দিনটি ‘পতাকা উত্তোলন দিবস’ হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। উল্লেখ্য ১৯৭২ সনের ৯ জুন প্রকাশ্য দিবালোকে স্বশস্ত্র দুর্বৃত্তদের হাতে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলক শাহিদুজ্জামান হেলাল শহীদ হন।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author