নৈশ প্রহরীকে বেঁধে রেখে ঈশ্বরদী খৃষ্টান মিশন হাউজে ডাকাতি

ঈশ্বরদী (পাবনা) সংবাদদাতাঃ
ঈশ্বরদী-লালপুর উপজলোর সীমান্তবর্তী পুরাতন ঈশ্বরদী এলাকার খৃষ্টান ধর্মাবলম্বীদের প্রতষ্ঠিান ঈশ্বরদী মশিন হাউজে শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা প্রতিষ্ঠানের প্রধান ফটক ভেঙ্গে দুইজন নৈশ প্রহরীকে বেঁধে রেখে ল্যাপটপ, টিভি, স্বর্ণালংকার, মোবাইল ও নগদ টাকা লুট করে নিয়ে যায়।
ঈশ্বরদী গার্লস হোমসের হোস্টলে সুপার জোসনা বিশ্বাস জানান, খৃষ্টান হাউজের অভ্যস্তরে ঈশ্বরদী গার্লস হোম নামে নারী শির্ক্ষাথীদরে একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এখানে ৫০ জন শিক্ষাথীর আবাসন। এছাড়া ব্যাপিস্ট র্চাজ ফলোশপি, ডিএফসিডিসি, ব্যাষ্ট্রিষ্ট এইড নামে প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের র্কমর্কতা ও কর্মচারীদের বসবাসের জন্য বাসভবনও আছে। শুক্রবার রাত আড়াইটার দিকে ৭ সদস্যের একটি ডাকাত দল মিশন হাউজরে প্রধান ফটক ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে কর্তব্যরত দুইজন নৈশ প্রহরী বিশ্বনাথ হমরেব ও সরল হমরেবকে হাত-পা ও মুখ বেঁধে আটকে রেেখ। পরে ডাকাতরা গার্লস হোমে প্রবেশ করে দুইটি ল্যাপটপ, নগদ ৪০ হাজার টাকা এবং হোস্টেল সুপার শ্যামল সরকারের বাসায় হানা দিয়ে স্বর্ণালংকার, নগদ ১০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। ডাকাতরা এসময় পাশের প্রতিষ্ঠানে ঢুকে একটি টিভি ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায়।
ঈশ্বরদী গার্লস হোমের দায়িত্ব থাকা কর্মর্কতা শ্যামল কুমার সরকারের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তিনি অফিসের কাজে ঢাকায় ছিলেন। ডাকাতির খবর পেেয় তিনি ঢাকা থেকে ফিরে আসছেন। ডাকাতির ঘটনায় প্রতিষ্ঠানরে পক্ষ হতে লালপুর থানায় অভিযোগ দেয় হলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরির্দশন করছেনে।
লালপুর থানার ওসি আবু ওবায়দে জানান, সকালে অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ডাকাতরি তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author