পাবনার পাকশি ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি পিন্টুকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা

মোবারক বিশ্বাস, পাবনা থেকে ঃ

পাবনা ঈশ্বরদী উপজেলার পাকশী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি সদরুল আলম পিন্টু (৩২) রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। গতকাল রোববার রাতে সন্ত্রাসীরা তাকে কুপিয়ে ও গুলি করে গুরত্বর আহত তরে। আজ সোমবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। রুপপুর পুলিশ ফাড়ির ইনচার্য এসআই ইকবাল পাশা জানান, গতকাল রোববার রাতে রূপপুর মোড়ে পিন্টুকে কুপিয়ে ও গুলি করে আহত করে সন্ত্রাসীরা। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে ঈশ্বরদী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ ভোরে সেখানে তিনি মারা যান। আহত পিন্টু চররূপপুর তিনবটতলা এলাকার আজাদের ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পিন্টু রূপপুর মোড়ে একটি ওষুধের দোকানে দাঁড়িয়ে ছিল। এসময় ৭-৮ জনের একটি সশস্ত্র সন্ত্রাসী দল তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরা তাকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে তার কোমড়ে দুটি গুলি লাগে। পরে সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করে।
স্থানীয় একাধিক সূত্র ও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মী জানান, পাকশী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। এর আগে একই ইউনিয়নের ছাত্রলীগ কর্মী সৌরভ হোসেন টুনটুনি’র এক হাত কেটে নিয়ে মোটরসাইকেলে উল্লাস করেছিলেন এই সদরুল আলম পিন্টু। ধারণা করা হচ্ছে, টুনটুনি গ্রুপের লোকজন প্রতিশোধ নিতে তাকে হত্যা করেছে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author