জাতীয় গণফ্রন্টের উদ্যোগে পাবনায় মাওলানা ভাসানীর ৪০তম স্মরণসভা অনুষ্ঠিত

মাওলানা ভাসানী মার্কিনসহ সকল সাম্রাজ্যবাদ, ভারতীয় আধিপত্যবাদ, দালাল-লুটেরাপুঁজি, সামন্তবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে শ্রমিক, কৃষক খেতমজুর, মধ্যবিত্ত-নিম্নবিত্ত মেহনতি জনগণের জন্য আজীবন লড়াই করে গেছেন এবং সমাজতন্ত্রের লক্ষ্যে জনগণের গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র, সরকার ও সংবিধান প্রতিষ্ঠার লড়াকু সৈনিক ছিলেন । মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর ৪০তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ৩০ নভেম্বর বিকাল ৫টায় জাতীয় গণফ্রন্ট-এর খেয়াঘাট রোডস্থ পাবনা ভবনে পাবনা জেলা কার্যালয়ে এক স্মরণসভা জাতীয় গণফ্রন্টের উদ্যোগে পাবনা জেলা কমিটির সমন্বয়ক হাসিবুর রহমান হাসুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। স্মরণসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ন্যাশনাশ আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ ভাসানী) কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি এ্যাডঃ শেখ আব্দুল আজিজ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল পাবনা শাখার সভাপতি মজিবর রহমান ও তেল-গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি পাবনা জেলা শাখার সদস্য সচিব সাংবাদিক আবদুল জব্বার। বক্তব্য দেন জাতীয় গণতান্ত্রিক শ্রমিক ফেডারেশনের পাবনা জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক শ্রমিকনেতা আব্দুল কুদ্দুস, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন ফেডারেশন (ট্রাফ) এর পাবনা শাখার সভাপতি শ্রমিকনেতা মকবুল হোসেন, জাতীয় কৃষক খেত মজুর সমিতির পাবনা সদর উপজেলা কমিটির যুগ্ম আহবায়ক এস, এম, ইউনুছ আলী, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর পাবনা জেলা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ছাত্রনেতা রনজু আহমেদ প্রমূখ নেতৃবৃন্দ। সভার শুরুতে মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর কর্মময় স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। স্মরণসভায় প্রধান অতিথি শেখ আব্দুল আজিজ বলেন, শ্রমিক শ্রেণীর নেতৃত্ব ছাড়া গরীব মেহনতী মানুষের মুক্তি সম্ভব তা প্রমাণিত, তাই শ্রমিক শ্রেণীর নেতৃত্বে সকল বাম প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক শক্তি ঐক্যবদ্ধ হয়ে শোষণমুক্ত সমাজ ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করে মাওলানা ভাসানীর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করার আহবান জানান। বিশেষ অতিথি মজিবর রহমান বলেন, সাম্রাজ্যবাদের দালাল বর্তমান সরকারসহ সকল শাসক শোষক শ্রেণীর বিরুদ্ধে প্রকৃত বামদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান। বিশেষ অতিথি আবদুল জব্বার বলেন, সুন্দরবন বিনাশী রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও জনবিধ্বংসী রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবিতে চলমান আন্দোলন বেগবান করা এবং সেই সাথে মাওলানা ভাসানীর অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার জন্য জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান। সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, খুন-গুম, সন্ত্রাস, ঘুষ-দূর্নীতি বন্ধ, ফুলবাড়ীতে উন্মুক্ত কয়লা উত্তোলন বন্ধ, পাবনার ইছামতি নদী খনন, শ্রমিকদের ৮ ঘন্টা কর্মদিবস ও বাঁচার মত মজুরী, কৃষকদের ফসলের ন্যায্যমূল্য, কৃষি উপকরণের মূল্য কমানোর দাবীতে আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য প্রকৃত বাম প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক শক্তি ও দেশ প্রেমিক জনগণকে আন্দোলনের মাধ্যমে বর্তমান রাষ্ট্র ও সরকার ব্যবস্থা উচ্ছেদ করে মেহনতি জনগণের রাষ্ট্র, সরকার ও সংবিধান প্রতিষ্ঠার মধ্যদিয়ে মাওলানা ভাসানীর অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার আহবান জানান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author