পাবনায় পানিতে ডুবে শিশু কীটনাশক পানে গৃহবধূর মৃত্যু

পাবনা প্রতিনিধি ঃ পাবনার চাটমোহরে নানার বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে পানিতে ডুবে রাতুল (৩) নামে এক শিশু ও কীটনাশক পানে সুলতানা খাতুন (৩০) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টার দিকে শিশু রাতুল ও বুধবার বিকেলে পৌর শহরের ছোট শালিকা মহল্লায় গৃহবধূ সুলতানার মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

শিশু রাতুল উপজেলার মূলগ্রাম ইউনয়নের জগতলা নতুনপাড়া গ্রামের হাফিজুল ইসলামের ছেলে ও গৃহবধূ মহল্লার মো. মোস্তফা হোসেনের স্ত্রী ও পাবনা সদর উপজেলার ছাতিয়ানী গ্রামের সুলতান হোসেনের মেয়ে।

জানা গেছে, শিশু রাতুল তার মায়ের সাথে নানার বাড়িতে বেড়াতে যায়। সেখানে গিয়ে বাড়ির অন্য শিশুদের সাথে খেলায় মেতে ওঠে সে। খেলতে খেলতে পরিবারের সবার অগোচরে বাড়ির পাশের পুকুরের পানিতে পড়ে যায়। কিছু সময় পরে শিশু রাতুলের খোঁজ করতে গিয়ে পুকুরে তার ভাসমান দেহ দেখতে পাওয়া যায়। এসময় তাকে পানি থেকে উঠিয়ে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন মূলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. আনোয়ার হোসেন।

অপর দিকে, বুধবার বিকেলে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে সুলতানা বেগম জমিতে দেয়া কীটনাশক পান করেন। কিছুক্ষণ পর তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুলতানা খাতুনকে মৃত ঘোষণা করেন। স্থানীয়রা জানান, সম্ভবত স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কলহের কারণে সুলতানা খাতুন কীটনাশক পান করে আত্মহত্যা করেছেন।

চাটমোহর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. শরিফুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার ময়নাতদন্তের পর সুলতানা খাতুনের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author