শাজহজাদপুর প্রতিনিধি ঃ
শাহজাদপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসে ইনোভেশন পাফরমেন্স রেজিস্টার চালুর পর থেকেই শিক্ষা অফিসের সেবার মান বৃদ্ধির পাশাপাশি হয়রানি ও দূর্নীতি কমেছে । দূর্নীতি এখন শূন্যের কোঠায় এমন দাবি করলেন ওই অফিস প্রধান । শাহজাদপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ ফজলুল হক জানান শিক্ষা অফিসের সেবা পেতে কোন ঘুষ দিতে হয় না । এখন প্রভাবমুক্ত ও কোন প্রকার টাকা পয়সা লেনদেন ছাড়াই তাঁর অফিস থেকে সেবা পাচ্ছেনএ অফিসে আগত সবাই । বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও অবসর প্রাপ্ত শিক্ষকদের নানা কাজে আসতে হয় এ অফিসে । এতদিন নানা অজুহাত দেখিয়ে কাজ না করেই ফিরিয়ে দেওয়া হোত অবসর প্রাপ্ত শিক্ষকদের । এজন্য পকেটের পয়সা খরচ করে অফিস থেকে কাজ উদ্ধার করতে হোত অনেককেই । এছাড়া স্কুলের নানা উন্নয়ন মূলক কাজ ও বিভিন্ন শিক্ষামূলক কাজে বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আসতে হয় উপজেলা শিক্ষা অফিসে । ইনোভেশন পাফরমেন্স রেজিস্টার চালুর আগে উপজেলা শিক্ষা অফিসের এক শ্রেণীর কর্মকর্তা কর্মচারীদের দূর্নীতির কারণে বাধ্য হয়ে টাকা দিয়ে কাজ করিয়ে নিতে হত । ইনোভেশন পাফরমেন্স রেজিস্টার চালুর পর দূর্নীতি এখন আর নেই বলে জানালেন পূর্ব চরকৈজুরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবুল হোসেন । বাবুল হোসেন জানান ইনোভেশন পাফরমেন্স রেজিস্টার চালুর পর শিক্ষক বা অন্য কেউ শিক্ষা অফিসের কাজ সেড়ে অবশ্যই তাকে অফিস থেকে সেবা নিতে কোন প্রকার হয়রানি পোহাতে হয়েছে কিনা মতামত জানাতে সেবার কার্ড ইনোভিশন বাক্সে ফেলে মতামত জানাতে হয়। গত বৃহস্পতিবার উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ ফজলুল হক জানান সেবা মান নিশ্চিত করতে অফিস বারান্দায় তিনটি ইনোভিশন বাক্স রাখা হয়েছে । এই বাক্সে অভিযোগ ও সেবার মান নিয়ে মতামত জানাতে খুবভাল ভাল ও মোটামুটি লেখা মন্তব্যের টিকিট ফেলে যাচ্ছেন সেবা গ্রহন কারিরা । একজন সেবা গ্রহিতা অফিসের যে টেবিলে এসেছিলেন সেই অফিসার বা কর্মকর্তার বা অফিস সহকারি ওই অফিসের যে কোনজনের বিষয় মতামত প্রকাশ করতে ওই অফিসারের নামের কার্ডটি বাক্সে ফেলে চলে যাবেন । উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও সহকারারি শিক্ষা অফিসার এরা সবাই মেলে প্রতি সপ্তাহে একবার বাক্স খুলে জানতে পারবেন অফিস প্রধান সহ কারও কাজে গাফলতি আছে কিনা । কেউ দুর্নীতির আশ্রয় নিলে সেটিও উঠে আসবে ইনোভেশন পাফরমেন্স রেজিস্টারে। উপজেলার নলুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাবিবুন নাহার বলেন গত তিন মাস ধরে উপজেলা শিক্ষা অফিসে ইনোভেশন পাফরমেন্স রেজিস্টার চালুর পর থেকেই নানা ধরনের হয়রানী যেমন বন্ধ হয়েছে পাশাপাশি অফিসে এসে অযথা এখন আর বসে থাকতে হয়না । স্থানীয় শিক্ষকদের মধ্যে নতুন এ ব্যবস্থা খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে বলে একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে মতামত জানা যায় ।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author