ভাঙ্গুড়ায় ইয়াবাসহ আটক মাদক ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দিলো পুলিশ !

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় শনিবার রাতে ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটকের পরে পুলিশ একজনকে ছেড়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আটক ব্যক্তিরা হলো উপজেলার ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের ঝি-কলকতি গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে হাসানুর (৩৫) ও মুক্তার আলীর ছেলে সেলিম হোসেন (৩২)। পুলিশ উভয়কে আটকের পরে থানায় নিয়ে এসে এক ঘন্টা পরে হাসানুরকে ছেড়ে দেয়।

প্রর্ত্যক্ষদর্শী আলম হোসেন ও রাজীব সহ ৫/৬ জন ব্যক্তি জানান, শনিবার রাত ৯ টার দিকে ঝি-কলকতি গ্রামের আবু শাহিনের চায়ের দোকানের সামনে হাসানুর ও সেলিম ইয়াবাসহ বসে ছিল। এসময় সেখানে এস আই হাসানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিমের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা ইয়াবা দোকানের পাশেই ফেলে দেয়। পরে পুলিশ সেখানে খোঁজাখুজি করে ৫ পিচ ইয়াবা উদ্ধার করে এবং দু’জনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এর এক ঘন্টা পর পুলিশ হাসানুরকে থানা থেকে ছেড়ে দেয়। এ বিষয়ে ঝি-কলকতির গ্রামের ইউপি সদস্য গোলাম মোস্তফা জানান, ইয়াবা রাখার দায়ে দু’জনকে আটক করার পরে হাসানুর নামে একজনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে বলে শুনেছি।

অভিযান পরিচালনাকারী এস আই হাসান জানান, ইয়াবা রাখার সন্দেহে দু’জনকে তল্লাশী করে সেলিমের কাছ থেকে ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। পরে দু’জনকে আটক করে থানায় নিয়ে এসে পুর্বের রেকর্ড দেখে সেলিমকে আটকে রেখে হাসানুরকে ছেড়ে দেয়া হয়। আটক একজনকে ছেড়ে দেয়ার বিষয়টি স্বীকার করে ভাঙ্গুড়া থানার ওসি শাহিন কামাল জানান, হাসানুর ইয়াবা নিজের কাছে রাখেনি এবং খায়নি বলে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। কিন্তু ৫ পিচ ইয়াবা রাখার দায়ে সেলিমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে রবিবার তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author