পত্নীতলায় ঈদ মার্কেটে উপচে পড়া ভিড়

সিয়াম সাহারিয়া, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি: রমজানের শেষ মুহুর্তে নওগাঁ জেলার পত্নীতলা উপজেলার নজিপুর সদরে জমে উঠেছে ঈদ বাজার। বিভিন্ন মার্কেটের শপিং মল থেকে শুরু করে ফুট পাতের দোকান গুলোতে তিল ধরনের ঠাই নেই। ঈদে চাই নতুন পোশাক। তাইতো সাধ আর সাধ্যের মধ্যে না থাকলেও প্রিয় জনের উপহার দিতে ধনী ও মধ্যবিত্তদের পাশাপাশি কেনা কাটায় ব্যস্থ সময় পার করছে নিম্নবিত্তের মানুষও।
এদিকে ঈদ উপলক্ষে নজিপুর সদরের বিভিন্ন মার্কেট গুলোতে ভারতীয় পোষাকে ছেয়ে গেছে,যদিও গত ঈদের চেয়ে এবার একটু কম। দোকান মালিকরা বলেন,ক্রেতা দোকানে আশার সাথে সাথেই ভারতীয় পোষাক চাই,আর যে দোকান গুলোতে ভারতীয় পোষাক পাওয়া যাচ্ছে না,সেই দোকান গুলিতে তেমন ভিড় লক্ষ করা যাচ্ছে না।তবে এসব মার্কেটে মানসম্মত দেশীয় পোশাক সামগ্রী থাকলেও ক্রেতা সাধারনের চাহিদা ভারতীয় পোশাকের প্রতি একটু বেশী। এবার ঈদে মেয়েদের জন্য আকর্ষণীয় পোশাকের মধ্যে রয়েছে ফ্লোর টার্চ, লাসা, লং স্কট, শর্ট স্কটসহ বিভিন্ন নামের থ্রি-পিস ও ফোর পিস পোশাক। তবে দেশী অনেক পোশাক ক্রেতাদের আকৃষ্ট করেছে। আকৃষ্ট করেছে দেশীয় পণ্য টাঙ্গাইল শাড়ি, জামদানী, খদ্দর, মনীপুরী, রাজগুরু, জর্জেট শাড়ি ইত্যাদি।
গত বছরের তুলনায় এবার পোশাকের দাম একটু বেশি হওয়ায় নিম্নবিত্তরা পড়েছেন বিপাকে। অবশ্য নিম্নবিত্তদের কথা চিন্তা করে ইতোমধ্যে ফুটপাত মার্কেটে বেশ কয়েকটি পোশাকের দোকান দিয়েছে স্বল্প পুঁজির ব্যবসায়ীরা। বড় বড় মার্কেটের চেয়ে এই সব মার্কেটে জমে উঠেছে বেচাকেনা। তাছাড়া জুতার দোকানেও ভিড়ের কমতি নেই, বেড়েছে কসমেটিকসের বেচা কেনাও। বড়দের সাথে পাল্লা দিয়ে পছন্দের জুতা, স্যান্ডেল, প্যান্ট, জামা কিনছে শিশুরা। সব ধরনের ক্রেতাদের চাপে দোকানীদের এখন দম ফেলার ফুরসত নেই বললেই চলে।
এ দিকে আবার ঈদ কে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন নগরীর টেইলার্স গুলির দজ্রিরা। সময় মতো পোষাক ডেলিভারি দেয়ার চিন্তায় তারা দিন-রাত সমান তালে কাজ করে যাচ্ছেন। দজ্রিরা জানান, ২০ রমজানের পর আর কোনো নতুন অর্ডার নেওয়া হয়নি। কিন্তু যে অর্ডার তারা নিয়েছেন তা সময় মতো ডেলিভারি দিতেই তাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author