গুরুদাসপুরে ছাত্রদল নেতা অস্ত্র ও গুলিসহ আটক

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি.
নাটোরের গুরুদাসপুরে সুজাউদ্দৌলা ওরফে সুজন (২৬) নামের এক ছাত্রদলনেতা দেশীয় ওয়ান শ্যুটার পাইপগান ও এক রাউন্ড গুলিসহ আটক করেছে গুরুদাসপুর থানা পুলিশ। সুজন পৌর সদরের গাড়িষাপাড়া মহল্লার হাফিজুর রহমানের ছেলে।
পুলিশ সুত্রে জানাযায়, রোববার রাত দেড়টার দিকে পৌর সদরের গাড়িষাপাড়া নুরুলের দোকান মোড়ে অস্ত্র নিয়ে মহরা দেওয়ার গোপন সংবাদ পেয়ে এসআই সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ সেখানে পৌঁছালে সুজন দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা করে। এএসআই আনোয়ার হোসেন তাকে আটক করে। দৌঁড়ে পালানোর সময় পাশর্^বর্তী কছিমুদ্দিনের কচুর জঙ্গলে ফেলে দেওয়া ওই পাইপগান তার দেখানো মতে উদ্ধার করা হয়েছে।
এলাকাবাসী সুত্রে জানাযায়, আটককৃত সুজন দীর্ঘদিন ধরে মাদক ব্যবসা করে আসছে। তাছাড়াও তার বিরুদ্ধে নারী কেলেংকারীর মতো ঘটনাও রয়েছে। সে ছাত্রদলের অস্ত্রধারী ক্যাডার। কিছু আ’লীগ প্রভাবশালী নেতারদের ছত্রছায়ায় এধরনের অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। ফলে এলাকার মানুষ শত নির্যাতনের পরও তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ পর্যন্ত করতে সাহস পায়না।
নাটোর জেলা ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক জানান, দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রদলের কোন কমিটি নাই। সুজন ছাত্রদলের কিনা তা বলতে পারবোনা। তবে কোন স্তরের কর্মি হলেও হতে পারে।
উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান জানান, উপজেলায় ছাত্রদলের কোন কমিটি নেই। তবে আগামীতে সে একটা পোষ্ট পাবে।
সুজনের বাবা হাফিজুর রহমান বলেন, তার ছেলে বিএনপি করায় তাকে ফাঁসানো হচ্ছে।
গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ সেলিম রেজা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সে অস্ত্রধারী ক্যাডার। তাকে অস্ত্রসহ আটক করে অস্ত্র আইনে মামলা নেওয়া হয়েছে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author