ফিরে এসো বঙ্গবন্ধু

শেলী ‍উর্বশী
বঙ্গবন্ধু তুমি বিপ্লবী, তুমি বীর
তুমি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী
তুমি দুরন্ত দূর্বার গতিতে ছুটে চলা মহা ত্রাস
তুমি তোমার সময়ে এক গতিশীল উচ্ছাস
তুমি ৭ই মার্চের এক জ্বালাময়ী ভাষণ
তুমি মুক্তিযুদ্ধ, তুমি একাত্তর
তুমি পঁচাত্তরের ঘাতকের ফাঁসির মঞ্চ
তুমি সঞ্চিতা রূপসী বাংলার স্নিগ্ধ স্পর্শ
তুমি লক্ষ-কোটি হৃদয়ের প্রাণ
তুমি জয় বাংলার শ্লোগান
তুমি লাল সবুজের পতাকা।
তুমি বাংলা আর বাঙ্গালীর প্রদীপ্ত বর্ণমালা
তুমি তপ্ত দুপুরে রোদ্রের আস্ফালন
তুমি চির প্রেরণার দুর্ভেদ্য এক নাম
তুমি বাঙ্গালীর মুক্তির সংগ্রাম
তুমি হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা
তুমি চিরজীবী,মৃত্যুঞ্জয়ী
বঙ্গবন্ধু তুমিই বাংলাদেশ!!

অার আমি?
নষ্ট সময়ের পথভ্রষ্টা, স্বপ্নের রথযাত্রার এক যাত্রী
আমি নিঃস্পেষিত এক প্রাণ
আমি অর্বাচিন,বিলুপ্ত হয়েছি বাস্তবতায়।
এখন আর দাবি আদায়ের শ্লোগান উঠে না
হাতে উঠে পেট্রোল বোমা, অস্ত্রের হুংকার।
জ্বলে উঠে আগ্নেয়গীরির অগ্নুৎপাত
ভস্মীভূত হয়ে উড়ে যায় রক্তাক্ত লাশ।

আজ নষ্ট সময়ে শকুনেরা খামচে ধরেছে মানচিত্র
ক্ষত-বিক্ষত করেছে দেহ
প্রতিবাদ নেই, প্রতিরোধ নেই
নেই কোন প্রতিকার।
অস্ত্র ছেড়ে, ছেড়া বস্ত্রে ভিক্ষা করে মুক্তিযোদ্ধা
কোথায় তোমার জয়বাংলা,কোথায় তোমার সেই শ্লোগান?
কোথায় তোমার অভিযাত্রিক বিপ্লবী মিছিল?
কোথায় তোমার শাণিত ভাষণ?
কোথায় তোমার প্রতিবাদী কন্ঠস্বর?
জেগে ওঠো, জ্বলে ওঠো
আজ সময়ের দাবি তোমায় বড্ড বেশি প্রয়োজন।

হে বঙ্গবন্ধু,
তুমি যদি পূনরোজ্জীবিত হও
এই নষ্ট সময়ে
আমার মস্তক যদি দ্বিখন্ডিত হয়,
তবে তাই হোক,
আমার ধর্মান্তরিত হতেও কোন আপত্তি নেই।
তুমি ফিরে এসো হে জাতির জনক
জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছারখার করো যত অনাচার
আকাশ বাতাস প্রকম্পিত করে তুমি বলে ওঠো
আমি সুনামী, আমি সিডর, আমি নার্গিস
আমি মহাসেন, আমি মোরা, আমি অক্ষি।
মহাপ্রলয়ের ঝড়োবেগে
রুদ্ধদ্বার ভেঙ্গে করো চুরমার।
তোমার আশায়,
জেগে আছি ষোল কোটি সন্তান
তোমার পদ ধ্বনিতে উচ্ছসিত হোক হাজার প্রাণ
লক্ষ প্রাণে জাগরিত হোক নতুন ভোরের সূর্য
নব উদ্দ্যামে আবারও জ্বলবে রণ তূর্য।
প্রকম্পিত হবে সীমারের হাতের নব খঞ্জর
তোমার চরণ ধূলিতে উন্মাদ হবে অতি উত্তম।

হে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান
এই বাংলায়, আর যদি অসহায়,হতদরিদ্র দিনমজুর,
দুর্বল শ্রমিক,কৃষকেরা অন্নের অভাবে পিসে যায়
দানবের থাবানলে,
যদি আর কোন পেট্রোল বোমায় মানবের
ভস্মীভূত হয়ে উড়ে যায় রক্তাক্ত লাশ।
আর আমি নিশ্চুপ থাকবো না।
আমি আর একবার জ্বলে উঠবো,
জ্বলে উঠবো অগ্নিশিখার মতো
জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছারখার করে দেবো
সব পিশাচের কালো হাত।
সাইক্লোনের বেগে সব কিছু ভেঙ্গে
করবো চুরমার।
আমি বলে উঠবো
জয় বাংলা,জয় বঙ্গবন্ধু।
কারণ আমি এক আদর্শিক মুক্তিযোদ্ধা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author