সাঁথিয়ায় ইউএনও’র হস্তক্ষেপে জমির অধিকার পেলেন বৃদ্ধা খোদেজা

পাবনার সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের হস্তক্ষেপে পৈত্রিক জমির অধিকার পেলেন খোদেজা খাতুন (৭০) নামের এক বৃদ্ধা।
জানা যায়, সাঁথিয়া উপজেলার আর-আতাইকুলা ইউনিয়নের গাঙ্গহাটি গ্রামের খোদেজা খাতুন (৭০)’র পৈত্রিক জমি ভাই-ভাতিজির হাত থেকে নিজ দখলের জন্য চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। ঐ জমি নামজারির জন্য স্থানীয় তৌশিল অফিসে ৩৬৪০/১১৭-১৮ নং আবেদন করেন। তার ভাই-ভাতিজিরা তৌশিল অফিসে আর,এস খতিয়ান ৪৭৫, ৪১২ , দাগ নং-৬৮০৩, ৬৯২৯ জমির পরিমান .০৭৫৫, .১১৬৯ মোট .১৯২৪ শতাংশ জমি বিক্রি করেছে মর্মে মিথ্যা অভিযোগ তুলে নামজারির না করার জন্য বাধা দেয়। বৃদ্ধা খোদেজা কোন উপায় না দেখে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট আবেদন করেন তার অধিকার ফিরে পেতে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহাঙ্গীর আলম দ্রুত সময়ের মধ্যে কাগজপত্র দেখে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) কে নিদের্শ প্রদান করেন। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শফিকুল ইসলামকে নিদের্শ পাওয়া মাত্রই উভয় পক্ষের কাগজপত্র দেখানের জন্য নিদের্শ দেন। বাদী পক্ষ তাদের কাগজপত্র দেখাতে না পারায় বৃদ্ধা খোদেজার নামে .১৯২৪ শতাংশ জমি ৩৬৪০/১১৭-১৮ নং নামজারি সম্পাদন করা হয়। বৃদ্ধা খোদেজার নামজারির টাকা দেয়ার মত সমর্থন না থাকায় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শফিকুল ইসলাম নামজারির ১,১৫০ টাকা পরিশোধ করেন। গত ২৬/০৬/২০১৮ইং তারিখে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহাঙ্গীর আলম বৃদ্ধা খোদেজার হাতে ডিসিআর তুলে দেন। বৃদ্ধা খোদেজা বলেন, এখনো দেশে আইনের শাসন আছে বলেই আমার অধিকার ফিরে পেলাম।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author