মৌলভীবাজারে ইভটিজিৎ প্রতিরোধে বিশেষ অবদানের জন্য তিন ছাত্রী পুরস্কৃত

মশাহিদ আহমদ, মৌলভীবাজার ঃ মৌলভীবাজারে ইভটিজিৎ প্রতিরোধে বিশেষ অবদানের জন্য হাফিজা খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেনীর ছাত্রী ফাহমিদা রমজান নিশাত, অর্পিতা রায় তুলি ও শিমলা সুত্রধর পুজাকে পুরস্কৃত করলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল বিপিএম বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে আজ ১ আগষ্ট সকালে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- মৌলভীবাজার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাশেদুল ইসলাম, মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সোহেল আহম্মেদ, হাফিজা খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাশেদা বেগমসহ বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী, অভিবাবক ও শিক্ষকমন্ডলীবৃন্দ। পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল বিপিএম বিদ্যালয়ের সাহসী ও মেধাবী ছাত্রীদের প্রশংসা করেন এবং তাদের হাতে হাবিবুর রহমান রচিত মুক্তিযোদ্ধের প্রথম প্রতিরোধ নামক বই ও অন্যান্য পুরস্কার তুলে দেন। উল্লেখ- দীর্ঘদিন ধরে সেলিম সাহাদ আল হাসান ও তার বন্ধুদের নিয়ে স্কুলে আসা যাওয়ার পথে বিভিন্ন মেয়েকে ইভটিজিৎ করত। গতকাল বিকেলে মৌলভীবাজার পুলিশ সুপার এর বাসভবনের সামনে হাসান তার অপর সহযোগী বন্দু জাকিরকে নিয়ে মেয়েদেরকে উত্তক্ত্য করে। এই সময় সাদা পোষাকে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহ-জালাল তার বাসভবনের সামনে অবস্থান করছিলেন । মেয়েরা দৌড়ে এসে সাদা পোষাকে থাকা এসপির কাছে সাহায্য প্রার্থনা করলে পুলিশ সুপারের নির্দেশে দুই যুবককে আটক করে পুলিশ। পরে পুলিশ সুপার এর কার্যালয়ের সামনে মৌলভীবাজার সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) এ.এইচ.এম. আরিফুল ইসলাম ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে হাসানকে ১মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও অপর সহযোগী জাকিরকে সতর্ক করেন।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author