Main Menu

ফরিদপুরে এলজিইডি’র সড়ক মেরামতে অনিয়মের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি: পাবনার ফরিদপুরে এলজিইডি’র একটি সড়ক মেরামতের কাজে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। কাজের সিডিউল অনুযায়ী ডব্লিউবিএমের থিকনেস না হওয়া সত্বেও তার ওপর দিয়ে তরিঘড়ি করে কার্পেটিং এর কাজ শুরু করা হয়েছে। উপজেলা প্রকৌশল অফিসের সহযোগীতায় ঠিকাদার এমন অনিয়ম করছেন বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। জানা যায়, বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়নে ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে এলজিইডি’র গ্রামীণ সড়ক মেরামত ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজের আওতায় ১ কোটি ২৭ লাখ টাকা ব্যয়ে উপজেলার বি-নগর ইউনিয়নের গোপালনগর-দিঘুলিয়া সড়কে ৫.৭৫ কিলোমিটার এবং ফরিদপুর-পারফরিদপুর সড়কে ১৭৭৮ মিটার মেরামতের কাজ পায় নিয়াজ নামে ঢাকার একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। পরে ওই কাজটি পাবনার ঝন্টু আহমেদ নামে এক ব্যক্তি সাব-কন্ট্রাক্ট নেয়। বুধবার সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, মেরামতের সিডিউলে ডাব্লিউবিএমের থিকনেস গড়ে ৩ ইঞ্চি ধরা থাকলেও ঠিকাদার তা দেড় থেকে দুই ইঞ্চি করে দীর্ঘ ৩/৪ মাস ফেলে রাখে। এতে অবিরাম বৃষ্টি ও যানবাহন চলাচলের চাপে ডব্লিউবিএমের খোয়া কাদায় পরিণত হয়ে ধুয়ে থিকনেস কমে যায়। এমনকি বেশ কয়েকটি স্থানে খোয়া ধুয়ে পুরাতন ডাব্লিউবিএমের খোয়া বেরিয়ে পড়ে। এরইমাঝে ওই কাজের মেয়াদ শেষ হওয়ায় ঠিকাদার সম্পুর্ন বিল উত্তোলন করে নেন। এরপর গত তিন সপ্তাহ আগে কার্পেটিং’র কাজ শুরু করলে আবারো বৃষ্টি শুরু হলে কাজ বন্ধ হয়ে যায়। পরবর্তীতে গতকাল বুধবার আবারো কাজ শুরু করা হয়। দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ-সহকারি প্রকৌশলী ইসলাম প্রাং জানান, কিছু অনিয়ম হলেও তা ঠিক করিয়ে নেয়া হচ্ছে। উপজেলা প্রকৌশলী আলমগীর হোসেন জানান, উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা কাজ পরিদর্শন করে গেছেন। কিছু ভুলত্রুটি আছে সে কাজগুলো ঠিক করে নেয়ার পরার্মশ দিয়েছেন তারা। সেভাবে সারিয়ে নেয়া হচ্ছে।