দ্বিতীয় দিনে উন্নয়ন মেলায় উপচে পড়া ভিড়

রফিকুল ইসলাম সুইট : “উন্নয়নের অভিযাত্রায় অদম্য বাংলাদেশ” এই প্রতিপাদ্য নিয়ে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে পাবনায় শুরু হয়েছে তিনদিন ব্যাপী জাতিয় উন্নয়ন মেলা ২০১৮। দ্বিতীয় দিনে উন্নয়ন মেলায় দেখা গেছে উপচে পড়া ভিড়। কয়েকটি স্টলে দেখা গেছে দীর্ঘ লাইন। কয়েকটি ষ্টল সাজিয়েছে চোখ ধাধানোর মতো করে। সেবা পেয়ে খুশি দর্শনার্থীরা। দ্বিতীয়দিন শুক্রবার ছুটির দিন হওয়ায় মেলায় ব্যাপক সমাবেশ ঘটেছে। অধিকাংশ মানুষই আসছে পরিবার ও স্বজন নিয়ে। সব বয়সের মানুষের উপস্থিতি দেখা গেছে মেলায়।
বৃহস্পতিবার সকালে পাবনা সরকারি এ্যাডওয়ার্ড কলেজ চত্বরে জেলা প্রশাসনের আয়োজিত চতুর্থ জাতীয় উন্নয়ন মেলা ২০১৮ এর ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
মেলায় ১৬০ টি ষ্টল বসেছে।সকাল থেকে রাত পযর্ন্ত মেলায় ব্যাপক জন সমাবেশ দেখা গেছে।
শিশু শিক্ষার্থী মিথিলা বলেন- বাচ্চাদের জন্য খেলার ব্যবস্থা থাকলে ভালো হতো। ফুসকার দোকানও নাই। কিন্তু অনেক কিছু দেখার আছে। শিখার আছে।
শিক্ষক সোহেল হাসান জানান- এই মেলা একটি ব্যাতিক্রম মেলা। যার মাধ্যমে দেখা যায়, জানা যায়এবংবিনোদন পাওয়া যায়। সরকারের উন্নয়ন এই মেলা ছাড়া জানা যেতো না। জনসেবার সুবিধার্থে কিছু কিছু প্রতিষ্ঠানের কাজের পরিধি আরো বাড়ানো প্রয়োজন।
পাবনা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এবং মেলা আয়োজন কমিটির সমন্বয়ক মো. শাফিকুল ইসলাম বলেন- বর্তমান সরকারের উন্নয়ন, লক্ষ্য, সেবা, নাগরিক সুযোগ সুবিধা, তথ্য সম্পর্কে মানুষকে অবহিত করার জন্য জাতীয় উন্নয়ন মেলার আয়োজন করা হয়। মানুষের চাহিদা, মতামত, পরামর্শ এই মেলার মধ্যদিয়ে সরকারকে অবহিত করা হয়। পাশাপাশি উদ্ভাবন, সংস্কৃতি, শিক্ষা এই মেলার মাধ্যমে বিনিময় হয়। সরকার ও জনগনের যোগসুত্র হবে জাতীয় উন্নয়ন মেলা। এই মেলায় সেবা নেয়ার মতো অনেক বিষয় আছে। জানার মতো এবং দেখার মতো অনেক কিছু রয়েছে। সেবা এবং বিনোদন উভয়ই পাওয়ায় মেলায় ব্যাপক দর্শনার্থী উপস্থিতি দেখা যাচ্ছে। মেলার উপস্থিতিই বলে দিচ্ছে মেলা সফল এবং স্বার্থক হচ্ছে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author