দলের ভাবমূর্তি যারা নষ্ট করবে, দলীয়ভাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: ভূমি মন্ত্রী

ঈশ্বরদী, পাবনা,
ভূমি মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এম.পি. বলেছেন, একটি আসনে একাধিক প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাশা করাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু যারা অনিয়মতান্ত্রিকভাবে শো-ডাউন করে, অন্যজনের কুৎসা রটায়, কাঁদা ছোড়া ছুড়ি করে, দলীয় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে তাদের বিরুদ্ধে দলীয়ভাবে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, মনোনয়ন দেওয়ার এখতিয়ার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটি কাউন্সিলের। দলনেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও নমিনেশন বোর্ডের মাধ্যমেই মনোনয়ন প্রার্থী নির্বাচন চূড়ান্ত করা হবে।
আজ দুপুরে ভূমি মন্ত্রীর ঈশ^রদী শের শাহ রোডের নিজ বাসভবনে পাবনা জেলা সাংবাদিক কর্মীদের সাথে মত বিনিময়কালে ভূমি মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এম.পি. এসব মন্তব্য করেন।
ভূমি মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ আরও বলেন, সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়ে পরিচ্ছন্ন নির্বাচন হবে। স্বাধীন নির্বাচন কমিশন এর দায়িত্ব পালন করবেন। নিরপেক্ষ নির্বাচন তাঁরা পরিচালনা করবেন। একটি সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অবাধ নির্বাচনের বিষয়ে সরকার নির্বাচন কমিশনকে সহায়তা করবে। তিনি বলেন, আসন্ন নির্বাচন স্বাধীনতার পক্ষে অর্থাৎ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে যেন হয় সকলকেই সেদিকটি বিবেচনা করা উচিত। বিশ^ মানবতার মা, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে অগ্রগতির যে কর্মযজ্ঞ চলছে এর ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে মন্ত্রী সকলের সহযোগিতা চান। বঙ্গবন্ধুর প্রতীক নৌকা, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মার্কা নৌকাকে জয়ী করে মানবতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আবারো ক্ষমতা গ্রহণের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য সকলের ঐকান্তিক সহযোগিতা চেয়েছেন ভূমি মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এম.পি.। মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন সোনার বাংলাকে বাস্তবায়ন করার যে উদ্যোগসমূহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গ্রহণ করেছেন, তার জন্য সারা বিশ^ দরবারে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে একজন মহীয়ান নেত্রী হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেছে। তিনি বলেন, চন্দ্র, সূর্য যতদিন থাকবে বাঙালি জাতি ও বাংলার স্বাধীনতা ততোদিন অব্যাহত থাকবে। মন্ত্রী বলেন, ১৯৮০ সালের পর থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরতœ, জননেত্রী শেখ হাসিনা অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে, দায়িত্বশীলতার সঙ্গে তাঁর নিরঙ্কুশ বুদ্ধিমত্তা ও প্রজ্ঞা দিয়ে এদেশের মাটি ও মানুষকে ভালোবাসা দিয়ে একজন বিশ^নেত্রী হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন। তাঁর নিরলস প্রচেষ্টা ও প্রজ্ঞার মাধ্যমে বাঙালি জাতিকে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে প্রতিষ্ঠা করেছেন। কৃষক-শ্রমিক, তাঁতী, মজুর, গৃহহীন, স্বল্প আয়ের মানুষের সার্বিক উন্নতি হয়েছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার ভালোবাসা, মমতা দিয়ে তাঁর নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার আমরা পেয়েছি, কয়দিন আগে ১৪ বছর আগের গ্রেনেড হামলার নৃশংস হত্যাকান্ডের বিচার আমরা পেয়েছি। পাকিস্তান থেকে আমদানিকৃত আর্জেস গ্রেনেড হামলায় নারী নেত্রী আইভী রহমানসহ ২৪ জনকে আমরা হারিয়েছি। এ হত্যাকান্ডে ১৯ জনের মৃত্যুদন্ড এবং তারেক জিয়া, হারিছসহ ১৭ জনেরে যাবজ্জীবন কারাদন্ড হয়েছে। দ্রুত এ বিচার কার্যকরের অপেক্ষায় আমরা আছি। তিনি বলেন, আইনের শাসন, গণতন্ত্র এ মৌলিক বিষয়গুলো পরিমার্জিত হচ্ছে। মানুষ তা ভোগ করছে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author